kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

নৃত্যশিল্পীকে জোরপূর্বক বিবস্ত্র করে নৃত্যের ভিডিও ধারণ, গ্রেপ্তার ১

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০২০ ১৯:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নৃত্যশিল্পীকে জোরপূর্বক বিবস্ত্র করে নৃত্যের ভিডিও ধারণ, গ্রেপ্তার ১

গ্রেপ্তারকৃত রেজুয়ানুল হক প্রিন্স

টাঙ্গাইলের সখীপুরে সুমন আহম্মেদ নামের (১৭) এক নৃত্যশিল্পীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার রাতে ওই নৃত্যশিল্পী বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ রাতেই মামলার আসামি রেজুয়ানুল হক প্রিন্স ওরফে প্রিন্স মাহমুদকে (২০) গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও নৃত্যশিল্পী সুমন আহম্মেদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে সুমন পৌরসভার জামতলা এলাকায় মহিলা মাদরাসার এক ছাত্রীকে (সুমনের আত্মীয়) হোস্টেলে পৌঁছে দিতে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে স্টার বয়েজ ক্লাবের সদস্য শরীফুল ইসলাম রাজু (২২) ও রেজুয়ানুল হক প্রিন্স ওরফে প্রিন্স মাহমুদের (২০) নেতৃত্বে পাঁচ বন্ধু সুমন আহম্মেদকে অপহরণ করে। পরে মোটরসাইকেলযোগে তারা সুমনকে পৌরসভার মুসুলিরচালা এলাকায় কলাবাগানের ভেতর পোল্ট্রি খামারের পরিত্যক্ত একটি ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে সুমনকে মারধর করা হয়। একপর্যায়ে তাকে বিবস্ত্র করে নৃত্য করতে বাধ্য করে মোবাইলে ভিডিও ধারণ করা হয়। পরে ঘটনাটি কাউকে জানালে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে রাত সাড়ে আটটার দিকে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সুমন আহম্মেদ ঢাকা রবীন্দ্র ক্লাবের জুনিয়র সভাপতি ও সখীপুর লোকাল বয়েজ ক্লাবের সদস্য বলে জানান।

সখীপুর থানার ওসি মো. আমির হোসেন বলেন, দুটি ক্লাবের বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। একজন আসামি গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা