kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৮। ৫ আগস্ট ২০২১। ২৫ জিলহজ ১৪৪২

পথ পাঠাগার উদ্বোধন করলেন দানবীর রিকশাচালক তারা মিয়া

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০২০ ১৩:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পথ পাঠাগার উদ্বোধন করলেন দানবীর রিকশাচালক তারা মিয়া

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী কুল্লাগড়া ইউনিয়নের ভেন্নাকান্দা চৌরাস্তা বাজারে পথ পাঠাগারের দ্বিতীয় শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে ফিতা কেটে এ পথ পাঠাগারের উদ্বোধন করেন উপজেলার মানবিক ও আলোকিত ব্যক্তি হিসেবে সুপরিচিত রিকশাচালক তারা মিয়া।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পথ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল হুদা সারোয়ার, মামুন রণবীর, কবি শাওন হাসান, মাসুদ রানা, সাংবাদিক রাজেশ গৌড়, মো. আশরাফুল ইসলাম, অমল সাংমা, ডা. এম এ সিদ্দিকসহ আরো অনেকে।

উদ্বোধনের সময় তারা মিয়া পথ পাঠাগারের সার্বিক সাফল্য কামনা করে বলেন, নতুন প্রজন্মকে বই পড়ায় আগ্রহী করে তুলতে এ পথ পাঠাগার ভূমিকা রাখবে।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে পথ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল হুদা সারোয়ার বলেন, জ্ঞানের উৎকর্ষ সাধনে পথ পাঠাগার প্রতিনিয়ত কাজ করছে। মাদকমুক্ত ও আলোকিত সমাজ বিনির্মাণে পাঠাগারে বই পড়ার বিকল্প নেই। এভাবে আমরা ক্রমান্বয়ে পথ পাঠাগার ছড়িয়ে দেব সারাদেশে।

সম্প্রতি সুসং দুর্গাপুরে প্রথম শাখা স্থাপনের মাধ্যমে পথ পাঠাগার যাত্রা শুরু করে। এ নিয়ে দুটি পথ পাঠাগার স্থাপিত হলো। এর মাধ্যমে সকল শ্রেণি ও পেশার পাঠককে বই পাঠে আগ্রহী করে তুলতে বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করার কথা জানান পথ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠার সাথে সংশ্লিষ্টরা।

উল্লেখ্য, তারা মিয়া করোনার মহামারি শুরুর দিকে দুর্গাপুরের ইউএনও ফারজানা খানমের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১০ হাজার টাকা সহায়তা করেন। এছাড়াও তিনি নিজের পুরাতন রিকশা বিক্রি করে সমুদয় অর্থ নৃ-গোষ্ঠীর ৫০ জন দরিদ্র শিক্ষার্থীর অভিভাবকের কাছে শিক্ষা উপকরণ কেনার জন্য ২০০ টাকা করে সহায়তা করেন। এতে মানবিক ও আলোকিত ব্যক্তি হিসাবে দুর্গাপুরে খ্যাতি পান তিনি। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ায় শিক্ষার আলোয় আলোকিত হতে পারেননি। এই দুঃখ লালন করে তিনি বিভিন্ন সময় স্কুল, মাদ্রাসার দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে সামর্থ্য অনুযায়ী বিভিন্ন সময় শিক্ষা উপকরণ দিয়ে সহায়তা করেন।



সাতদিনের সেরা