kalerkantho

সোমবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৩ সফর ১৪৪২

কবুতর পালন করে স্বাবলম্বী এরশাদ

স্বপন কুমার ঢালী, বেতাগী (বরগুনা)   

৯ আগস্ট, ২০২০ ১১:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কবুতর পালন করে স্বাবলম্বী এরশাদ

শখের বশে কবুতর কিনেছেন বছর আটেক আগে। নিজ বাড়িতে শখ করে মাত্র ৪০০ টাকায় এক জোড়া কবুতর কিনে পালন করে এখন সফল কবুতর খামারি বরগুনার বেতাগী পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. সাইদুল ইসলাম এরশাদ (৩২)। প্রিয় শখ এখন লাভজনক ব্যবসায় পরিণত হয়েছে এবং প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন তিনি।

পৃথিবীর সব দেশেই দেখা যায় এ শান্তির প্রতীক কবুতর। বাংলাদেশসহ এ উপমহাদেশে কবুতর পালন করে অতি প্রাচীনকাল থেকে। জনপ্রিয় গৃহপালিত পাখি পারাবত। জনশ্রুতি রয়েছে প্রাচীনকালে গৃহপালিত কবুতর চিঠির আদান-প্রদান করত। বাংলাদেশের জলবায়ু এবং বিস্তীর্ণ শষ্যক্ষেত কবুতর পালনের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। পৃথিবীতে ২০০ প্রজাতির কবুতর রয়েছে, এর মধ্যে বাংলাদেশে ৩০ প্রজাতির কবুতর রয়েছে। পূর্বে এ পাখিটি শখ করে পাল করা হতো। এখন সেই শৌখিনতা থেকে লাভজনক পেশায় পরিণত হয়েছে।

সরেজমিনে জানা গেছে, বেতাগী পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের পুরনো থানার সামনে সাইদুল ইসলাম এরশাদের বাড়ি। বর্তমানে বেতাগী বাসস্ট্যান্ডে মোবাইল সার্ভিসিং, ফ্লেক্সিলোড এবং বিকাশের লেনদেনের কাজ করছেন। ওই দোকানের বিপরীত পাশে একটি দোকানঘর ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি পালন করছেন এবং এতে লাভবান হয়েছেন। এরশাদ জানান, শখ করে কবুতর পালন করে এখন লাভজনক পেশা ও ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। 

জালালি, গিরিবাজ, শুয়াচন্দন, কালোদম, গিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির কবুতর পালন করছেন। প্রত্যেক জাতের কবুতরের জন্য আলাদা আলাদা খাঁচা রয়েছে। এক জোড়া জালালি কবুতর ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা, গিরিবাজ ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা এবং এক জোড়া শুয়াচন্দনের দাম ১২০০ থেকে ১৬০০ টাকা পর্যন্ত।

এরশাদের বিভিন্ন জাতের ১০০-র বেশি কবুতর রয়েছে। গম, চাল, ভুসি, ভুট্টা ভাঙা, সরিষা, ধান, চাল, ছোলা বুট, মটর ডালসহ পরিমিত পানি দিনে দু-তিনবার দিতে হয়। এতে প্রতি মাসে সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার টাকা খরচ করতে হয়। তিনি বলেন, কবুতরের বেশি খাবারেরও প্রয়োজন হয় না। প্রতিদিন দু-তিনবার খাবার ও পানি দিলেই হয়, তবে নিয়মিত এর বিষ্ঠা পরিষ্কার করতে হয়। তিনি আরো বলেন, প্রতি মাসে সব খরচ বাদে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা কবুতর বিক্রি করে আয় করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা