kalerkantho

শুক্রবার। ১৭ আশ্বিন ১৪২৭। ২ অক্টোবর ২০২০। ১৪ সফর ১৪৪২

আহত অর্ধশতাধিক

চুরি মামলায় আসামি হাজী, এই নিয়ে ৪ ঘণ্টা সংঘর্ষ!

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

৮ আগস্ট, ২০২০ ১৮:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুরি মামলায় আসামি হাজী, এই নিয়ে ৪ ঘণ্টা সংঘর্ষ!

নেত্রকোনার মদনে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে ৪ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার দুপুরে উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের নায়েকপুর ও বাঁশরী গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষর ঘটনা ঘটে। ৪ ঘণ্টা চলমান এই সংঘর্ষে দুই পক্ষের প্রায় অর্ধশতাধিক লোকজন  আহত হয়েছে বলে নায়েকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান রোমান নিশ্চত করেছেন। 

এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান নিজেও আহত হয়েছেন। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে বিকেল ৩টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সংঘর্ষে আহত ১০ জনকে এ পর্যন্ত মদন হাসপাতালে ভর্তি এবং ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন বলে জানিয়েছে মদন হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার অলিজা। বাকী আহতরা স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ঈদুল আযহার দিন বাশরী বাজার ট্রলার ঘাট থেকে কেন্দুয়া উপজেলার তাম্বুলী পাড়া পার্কে যেতে যাত্রী নিয়ে বাশরী গ্রামের ট্রলারচালক নুরুল ইসলামের সাথে নায়েকপুর গ্রামের ট্রলারচাকল জাসদের তর্ক হয়। একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর পরদিন (২ আগস্ট) রবিবার নায়েকপুর গ্রামের সবুজ ব্যাপারী বাদী হয়ে বাশরী গ্রামের হাজী জালাল উদ্দিনকে প্রধান আসামিসহ আরো ২৫ জনকে আসামি করে একটি চুরির মামলা দায়ের করেন। এরই জের ধরে শনিবার সকাল ১১টার দিকে বাশরী বাজারের ব্রিজের পাড়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ৩ ঘণ্টা পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খালিয়াজুরি সার্কেল) জামাল উদ্দিন জানান, একজন বয়স্ক হাজী ব্যাক্তিকে চুরির মামলার আসামি করায় এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তবে ট্রলার ঘাটে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শনিবার সকালে বাঁশরী ও নায়েকপুর গ্রামবাসীর মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা