kalerkantho

শুক্রবার। ১৭ আশ্বিন ১৪২৭। ২ অক্টোবর ২০২০। ১৪ সফর ১৪৪২

বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি

১০ ঘণ্টা ভাসার পর ৬ জেলে উদ্ধার, ট্রলারে মিলল ২ লাশ

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

৮ আগস্ট, ২০২০ ১৭:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১০ ঘণ্টা ভাসার পর ৬ জেলে উদ্ধার, ট্রলারে মিলল ২ লাশ

পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সংলগ্ন গভীর বঙ্গোপসাগরে ঢেউয়ের তোড়ে নামবিহীন একটি মাছ ধরা ট্রলার ডুবিতে দুই জেলে নিহত হয়েছেন। উদ্ধার করা হয়েছে ট্রলারে থাকা অপর ছয় জেলেকে। গতকাল শুক্রবার রাতে বঙ্গোপসাগরের প্রায় ৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে চার নং বয়া এলাকায় এ ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। আজ শনিবার ভোরে নিখোঁজ দুই জেলেকে ডুবে যাওয়া ট্রলারের ইঞ্জিন রুম থেকে উদ্ধার করা হয়। 

নিহত দুই জেলে হলেন- ইসা সিকদার (৩৫) ও আলম মোল্লা (৫৫)। তাদের বাড়ি কলাপাড়া উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের চর বালিয়াতলী গ্রামে। জীবিত উদ্ধার হওয়া জেলেরা হলেন- ট্রলার মালিক নজরুল ইসলাম মোল্লা, জহিরুল মোল্লা, সেলিম খান, বাদল হাওলাদার, রুবেল চৌকিদার ও পনু খান।

এ ব্যাপারে বালিয়াতলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ. বি. এম হুমায়ুন কবির জনায়, নাম বিহীন ট্রলারের মালিক নজরুল ইসলাম মোল্লা তাঁর ট্রলারযোগে সমুদ্রে মাছ শিকারে যান। সেখানে গিয়ে উত্তাল সাগর বক্ষে ট্রলারডুবির ঘটনায় দুই জেলে নিহত হন। নিহত দুই জেলের চর বালিয়াতলী গ্রামের বাড়িতে চলছে স্বজনদের আহাজারী।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গত ৬ আগস্ট আট জেলেরা মাছ শিকারের জন্য গভীর সমুদ্রে যাত্রা করে। শুক্রবার (৭ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে সাগরের হঠাৎ উত্তাল ঢেউয়ের তোড়ে ট্রলারটি বঙ্গোপসাগরের চার নং বয়া এলাকায় ডুবে যায়। এসময়ে ট্রলারের ছয় জেলে অন্য জেলেদের সহায়তায় প্রায় ১০ ঘণ্টা ভাসার পর উদ্ধার হলেও নিখোঁজ থাকে ওই দুই জেলে। ট্রলার ডুবিতে ইঞ্জিন রুমে আটকে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ ধারণা করছে। এ ঘটনায় কলাপাড়া থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা