kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, হাইমচরে ঢুকে পড়েছে জোয়ারের পানি

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

৬ আগস্ট, ২০২০ ০৯:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, হাইমচরে ঢুকে পড়েছে জোয়ারের পানি

দীর্ঘ একযুগ পর আবারো প্লাবিত হয়ে পড়েছে নদীপাড়সহ জেলার নিম্নাঞ্চল। এমন পরিস্থিতিতে চাঁদপুরে বন্যা আতঙ্ক বিরাজ করছে। চাঁদপুর লঞ্চ টার্মিনালসহ গুরুত্বপূর্ণ অনেক জায়গায় এখন হাঁটু পানি।

মূলত দক্ষিণের সাগর ফুঁসে ওঠায় এবং উজানের বন্যার পানির চাপে চাঁদপুরের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এতে জেলা শহরের বেশকিছু এলাকা এবং নদীপাড়ের জনপদ হাঁটু পানিতে তলিয়ে গেছে। এদিকে, মেঘনায় পানির চাপে চাঁদপুর সেচ প্রকল্পের হাইমচর অংশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের দুটি পয়েন্ট দিয়ে ভেতরে জোয়ারের পানি ঢুকতে শুরু করেছে। 

চাঁদপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বাবুল আখতার জানান, হাইমচরের মহজমপুর ও দক্ষিণ চরভাঙা এলাকার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে নির্মিত দুটি সেতুর নিচ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে পড়েছে। এমন সংবাদ পেয়ে সহকর্মীদের নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান তিনি। বাবুল আখতার আরো জানান, আজ এই দুটি পয়েন্টে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যাতে বাঁধের ভেতর পানি ঢুকতে না পারে।

এদিকে, হাইমচরে বাঁধ ভেঙে চাঁদপুর সেচ প্রকল্পে বানের পানি ঢুকছে। এমন সংবাদ কয়েকটি অনলাইন ও ফেসবুকে প্রচার করা হয়। এরপর থেকে আশপাশের এলাকায় বন্যা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটোয়ারী জানান, এতে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

প্রসঙ্গত, চাঁদপুর ও পাশের লক্ষ্মীপুর জেলার ৬টি উপজেলা নিয়ে 'চাঁদপুর সেচ প্রকল্প'। এই প্রকল্পে ৫৪ হাজার হেক্টর জমি এবং ছোট বড় ৫ হাজার মৎস্য খামার রয়েছে। অন্যদিকে, বিগত একযুগ পর চাঁদপুর শহরের বেশকিছু এলাকায় জোয়ারের পানি ঢুকে পড়েছে। শহরের নিচু এলাকার অনেক বাসাবাড়ি, সড়ক হাঁটু পানিতে তলিয়ে গেছে। নদীপাড়েও একই অবস্থা। এমন পরিস্থিতিতে চাঁদপুরে এখন বন্যা আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নিম্নচাপের প্রভাবে দক্ষিণের সাগর ফুঁসে উঠেছে। অন্যদিকে, উজানের পানির চাপ। এই দুই এর কারণে চাঁদপুরে মেঘনা ও পদ্মার পানি উপচে পড়ছে। ফলে তীব্র গতিতে লোকালয়ে পানি ঢুকতে শুরু করেছে। তবে দক্ষিণের সাগর শান্ত হলে অচিরেই পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে। এমন তথ্য জানিয়েছে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা