kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

'করোনাযোদ্ধা' মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত

হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি    

৬ আগস্ট, ২০২০ ০৯:৪৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'করোনাযোদ্ধা' মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত

করোনার প্রাদুর্ভাবে দিনাজপুরের হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার মানবিক মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত সাহসিকতার সঙ্গে অসহায় মানুষের কাছে পৌঁছে দেন খাদ্যসামগ্রী। করোনার শুরুতেই হ্যান্ডবিল, মাস্ক, সাবান বিতরণ করেন। সড়কে জীবাণুনাশক স্প্রে ও স্থানে স্থানে সাবান-পানির ব্যবস্থা করেন। আবাসিক এলাকায় মশা নিধনের ওষুধ স্প্রে, পৌরসভায় ও জিরোপয়েন্টে জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করেন।

লকডাউনে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ উপহারসহ ব্যক্তি উদ্যোগে ছয় হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেন। প্রদান করেন ঈদ উপহার, গত ঈদুল ফিতরে সাড়ে সাত হাজার পরিবারের মধ্যে নিজ তহবিল থেকে প্রদান করেন সেমাই, চিনি এবং ঈদুল আজহায় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় তিন হাজার পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল দেওয়ার পাশাপাশি নিজ তহবিল থেকে আরো এক হাজার পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল প্রদান করেন। এ ছাড়া ২৫ জুন থেকে পৌরসভায় চালু করেন 'নো মাস্ক নো এন্ট্রি' এবং পরবর্তী সময়ে 'নো মাস্ক নো সেল' কর্মসূচি চালু করেন। বাংলাদেশে এই পৌরসভায়ই প্রথম এই কর্মসূচি চালু করা হয়েছে বলে জানায় সচেতন মহল।

করোনা আক্রান্তের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য ও ফল পৌছে দেন। এবং সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখায় পৌর এলাকায় 'করোনাযোদ্ধা'র খেতাব পান মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত। পৌরবাসী তাকে 'মানবতার ফেরিওয়ালা' বলেও অভিহিত করেন। 

হাকিমপুর উপজেলার ১৬ দশমিক ৭ বর্গ কিলোমিটার আয়তন বিশিষ্ট হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভা গঠিত। এখানে মোট জনসংখ্যা ৫০ হাজার। এটি সীমান্তরবর্তী পৌরসভা। পৌর এলাকায় রয়েছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর স্থলবন্দর হিলি স্থলবন্দর ও একটি জুটমিল। ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো মেয়র নির্বাচিত হন। এছাড়াও হাকিমপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। 

জনগণের জীবনযাত্রা ও পৌর এলাকার নাগরিকসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি রাস্তাঘাট নির্মাণ, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন, অধুনিক পৌরভবন, পৌরভার অভ্যন্তরে বিভিন্ন মসজিদ-মাদরাসা উন্নয়নে পৌরসভা ও নিজ তহবিল থেকে অর্থ প্রদান। শিক্ষানুরাগী এ মেয়র ঐতিহ্যবাহী ছাতনী রাউতারা জে এম ফাজিল মাদরাসায় সভাপতি পদে থেকে মাদরাসার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডসহ সার্বক্ষণিক শিক্ষক ও অভিভাবকদের সাথে সুসম্পর্ক রেখে ভালো ফলাফল করতে সহায়তা করছেন। এছাড়াও পৌরসভার অভ্যন্তরে যেসকল ছাত্র-ছাত্রী ভালো ফলাফল অর্জন করছেন তাদের শুভেচ্ছা জানাতে ফুল ও মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে উপস্থিত হন। পৌরসভার রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি করে 'গ' শ্রেণি থেকে 'খ' শ্রেণিতে উন্নীত করেন। 

মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত জানান, হাকিমপুর (হিলি) পৌর সভার জনগণের উন্নয়নের প্রত্যাশা অনুযায়ী চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো জানান, এ পৌরসভায় মাদক, ঘুষ, দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজদের কোনো স্থান নেই। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা