kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

রিপ্রেজেন্টেটিভ গ্রেপ্তার

সেবা চেয়ে ডেকে নার্সকে যৌন হয়রানি!

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

৩ আগস্ট, ২০২০ ১৭:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সেবা চেয়ে ডেকে নার্সকে যৌন হয়রানি!

বাচ্চা প্রসবে সহায়তা দেয়ার মিথ্যা কথা বলে ফাঁকা বাড়িতে ডেকে একজন সেবিকাকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগে নাভানা ফার্মাসিউটিক্যালসের রিপ্রেজেন্টেটিভ আব্দুর রশিদকে (৩০) হাতেনাতে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুমারখালী উপজেলার দুর্গাপুর পুর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আজ সোমবার সকালে ওই নারী বাদী হয়ে প্রতারক আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ওই নারী একজন নার্স এবং ওটি ইনচার্জ হিসাবে কুমারখালী প্রতীক প্রাইভেট হাসপাতালে চাকরি করেন। প্রায় একমাস আগে নাভানা ফার্মাসিউটিক্যালসের রিপ্রেজেনটিভ আব্দুর রশীদ তার কাছে অনেক ডেলিভারী রোগী আছে, এমন মিথ্যা প্রলোভন দিয়ে ওই নারীর মোবাইল নম্বর নেয়।

গতকাল রবিবার সকালে প্রতারক রশিদ তার একজন স্বজনের ডেলিভারীর সময় হয়েছে বলে ওই নারীকে ফোন করে তার বাড়িতে আসতে বলে। ঈদের ছুটিতে বাড়ি থাকা ওই নারী কুষ্টিয়া শহরের চৌরহাস আদর্শপাড়া এলাকা থেকে কুমারখালী বাসস্ট্যান্ডে এসে রশিদকে ফোন দেন। রশিদ তাকে ভ্যানযোগে দুর্গাপুর পুর্বপাড়া এলাকার কালিমন্দিরের কাছে আসতে বলে। ওই নারী কালিমন্দিরের কাছে পৌঁছালে রশিদ তাকে নিয়ে নিজের ফাঁকা বাড়ির একটি কক্ষে নিয়ে দরজা বন্ধ করে জোরপূর্বক যৌন নিপীড়ন শুরু করে। এসময় ওই নারীর চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে পুলিশে খবর দেয়। এ খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রতারক আব্দুর রশীদকে হাতেনাতে আটক করে। প্রতারক রশিদ উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের হোগলা মধ্যপাড়া গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে। 

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় প্রতারক রশিদকে আটক করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা