kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আকস্মিক ভাঙনে নদীগর্ভে বিলীন স্লুইস গেট, বাজার

বাবুগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি   

৩ আগস্ট, ২০২০ ১৩:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আকস্মিক ভাঙনে নদীগর্ভে বিলীন স্লুইস গেট, বাজার

বরিশালের বাবুগঞ্জে আকস্মিক নদীভাঙনে পানি উন্নয়ন বোর্ডের একটি স্লুইস গেট নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। এ ছাড়া ভাঙনের তীব্রতায় নদীগর্ভে বিলীনের পথে সিংহেরকাঠি গ্রামের ঐতিহ্যবাহী ছোট মীরগঞ্জ বাজার। যুগ যুগ ধরে ধরে সর্বনাশা আড়িয়াল খাঁ নদের অব্যাহত ভাঙনে নদীপারের শত শত ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে। মাথা গোঁজার ঠাঁই হারিয়ে মানুষ অন্য জায়গায় আশ্রয় নিয়েছে। নদীভাঙন অব্যাহত থাকলেও ভাঙন রোধে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে নদীপারের মানুষ।

গত কয়েক দিনে উত্তরাঞ্চলের বন্যার অবনতি হলে আড়িয়াল খাঁ নদে জোয়ারের পানি বৃদ্ধির ফলে নতুন করে ভাঙন শুরু হয়। ফলে উপজেলার রহমতপুর ইউনিয়নের সিংহেরকাঠি গ্রামের বেশকিছু ঘরবাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। হুমকির মুখে সিংহেরকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মীরগঞ্জ বাজার, ফেরিঘাটসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। এ ছাড়া ভাঙনঝুঁকিতে এসব এলাকার শত শত একর আবাদি জমি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিংহেরকাঠি গ্রামের প্রায় অর্ধশতাধিক পরিবার নদীভাঙনে নিঃস্ব হয়ে অন্যত্র চলে গেছে। শতাধিক পরিবার ভাঙন আতঙ্কে জীবনযাপন করছে। এদিকে আড়িয়াল খাঁ নদীর ভাঙনের তীব্রতার খবর পেয়ে ভাঙনকবলিত পরিদর্শনে আসেন বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী হারুন অর রশিদ। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মৃধা মুহা. আক্তার-উজ-জামান মিলন বাবুগঞ্জের নদীভাঙনের বাস্তব চিত্র প্রকৌশলীকে ঘুরিয়ে দেখান এবং সুগন্ধা ও আড়িয়াল খাঁ নদীর ভাঙনের তীব্রতা সম্পর্কে ধারণা প্রদান করেন। প্রকৌশলী হারুন অর রশিদ ভাঙন পরিস্থিতি দেখে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন। তিনি সুগন্ধা নদীরও কয়েকটি ভাঙন স্পট পরিদর্শন করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা