kalerkantho

বুধবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৭। ৫ আগস্ট  ২০২০। ১৪ জিলহজ ১৪৪১

অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন আ. লীগ নেতা সোহেল

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

২ আগস্ট, ২০২০ ১৮:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন আ. লীগ নেতা সোহেল

দীর্ঘ ১৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দরের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আবসার সোহেল। 

আজ রবিবার বিকেলে টেকনাফে প্রয়াত ব্যবসায়ী ও টেকনাফ উপজেলা সেক্টর কমান্ডার ফোরাম একাত্তরের সভাপতি সোহেলের নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

গত ১৮ জুলাই টেকনাফে একটি সংঘবদ্ধ ইয়াবা কারবারি গ্রুপের হামলার শিকার হয়ে মাথায় মারাত্মক জখম ও বাঁ চোখে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। নিহত ব্যবসায়ীর ছোট ভাই এম কায়সার জুয়েল জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন।

এলাকাবাসী জানায়, নুরুল আবসার সোহেল টেকনাফের জমিদার হাজী কালা মিয়া প্রকাশ বড় কালা মিয়া হাজীর বড় মেয়ে সুফিয়া খাতুন ও মৃত মোহাম্মদ শফির বড় ছেলে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫০ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।

নিহতের ভাই এম কায়সার জুয়েল জানান, গত ১৮ জুলাই রাস্তায় ময়লা ফেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিবাদ করার জের ধরে আবদুল করিম প্রকাশ মোবাইল করিম নামের একজন চিহ্নিত ইয়াবা ও হুন্ডি কারবারির নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী চক্র তাঁর বড় ভাই সোহেলের ওপর হামলা চালায়। এতে সোহেলের বাঁ চোখ উপড়ে যাওয়ার পাশাপাশি গুরুতর আহত হন। এ ঘটনার পর থেকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর জানান, ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সর্বশেষ করা তালিকায় এক হাজার ১৫১ জন ইয়াবা কারবারি হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। ওই তালিকায় ৫৪২ নম্বরে আবদুল করিম ওরফে মোবাইল করিম, পিতা মৃত সুলতান আহমদ, সাবরাং লেজিরপাড়া, বর্তমানে টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীয়াপাড়ার বাসিন্দা। 

সারা দেশে যে প্রতারক সাহেদ আলোচিত হচ্ছে, ওই সাহেদের মতো টেকনাফের সাহেদ মোবাইল করিম। একসময় ছাত্রশিবির ও জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল। বর্তমানে টেকনাফের সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির পৃষ্ঠপোষকতায় এই করিম প্রতারণার সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে বলে টেকনাফের মানুষের অভিযোগ রয়েছে। সাবেক এই শিবির ক্যাডার এবং তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারির অস্ত্রের লাইসেন্সও পেয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা