kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

ঈদের দিন বানভাসিদের কাছে ছুটে গেলেন ইউএনও

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২ আগস্ট, ২০২০ ০০:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদের দিন বানভাসিদের কাছে ছুটে গেলেন ইউএনও

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ইউএনও মাসুদ রানা ঈদের দিন বাসায় ছুটির আরাম-আয়েশ না করে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে বানভাসিদের কাছে ছুটে গেলেন।

সঙ্গে নিয়ে গেলেন নিজের বাসায় কোরবানি দেওয়া গরুর মাংস, শিশুদের জন্য খেলনা। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে নিয়ে গেলেন ত্রাণ সহায়তা ও শিশুদের জন্য গুঁড়া দুধ।

এ সময় ইউএনও বিভিন্ন বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রের মানুষের বিভিন্ন সমস্যা মনোযোগ সহকারে শোনেন এবং সমস্যা সমাধানেরও আশ্বাস প্রদান করেছেন।

জুলাই মাসের মাঝামাঝি থেকে বানিয়াচং উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের কয়েক শ নিচু বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে।

যে কারণে কিছু মানুষ বিভিন্ন বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র ও বিদ্যালয়ে আশ্রয় গ্রহণ করেছে। এদের ইতিমধ্যেই সরকারিভাবে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্তাব্যক্তি হলেন- উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। করোনাভাইরাস শুরু হওয়ার পর থেকে মাঠ পর্যায়ে ইউএনওদের কর্মব্যস্ততাও বেড়ে গেছে।

সেই হিসেবে বানিয়াচংয়ের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঈদের ছুটি কাজে লাগাতে বিশ্রামের জন্য সদ্ব্যবহার না করে অসহায় বানভাসীদের সাহায্য করতে ছুটে গেলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মানবিক কর্মকাণ্ডে আশ্রয়কেন্দ্রের মানুষজন অভিভূত হয়ে পড়েছেন। কেউ বা ঘটনার আকস্মিকতায় হয়েছেন বাকরুদ্ধ।

এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলার প্রবীণ সাংবাদিক মোতাব্বির হোসেন বলেন, আমার জীবনে অনেক ইউএনও দেখেছি, ওনার মতো মানবিক গুণসম্পন্ন ইউএনও দেখিনি। ওনার জন্য শুভ কামনা রইল।

এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানা অতি বিনয়ীভাবে বলেন, আমি যা করেছি, তা আমি আমার দায়িত্ববোধ থেকেই করেছি। বেশি কিছু করিনি। এর জন্য ধন্যবাদ দিতে হবে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা