kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

করোনায় ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু, পরিবারের দাবি বার্ধক্যে

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১৬ জুলাই, ২০২০ ১৭:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু, পরিবারের দাবি বার্ধক্যে

বরগুনার তালতলী উপজেলার কড়াইবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলতাফ হোসেন আকন (৬৫) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন তিনি। তবে পরিবারের দাবি, তিনি করোনায় নয়, বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেছেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ জুন বিকেলে কড়াইবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আলতাফ হোসেন আকন জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে নমুনা দেয়। ওই দিনই সন্ধ্যার পর হঠাৎ তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। নমুনা দেওয়ার দুই দিন পর (১৬ জুন) তাঁর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আমতলী হাসপাতালে পৌঁছায়। তিনি  এক মাস ধরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১১টার দিকে মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর করোনা পজিটিভ থাকলেও পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন, তিনি করোনায় মারা যাননি, বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. শাহাদত হোসেন জানান, সর্দি, জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সময় ইউপি চেয়ারম্যান করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আমরা পাঠাই। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকালে তিনি মারা গেছেন বলে সংবাদ শুনেছি।

মরহুম ইউপি চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন আকনের ছোট পুত্র মিজানুর রহমান আকন মুঠোফোনে বলেন, আমার বাবা করোনা থেকে মুক্ত হয়েছিল। তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেছেন।  

তালতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কড়াইবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের জানাজা ও মরদেহ দাফন করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা