kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

উজানের ঢলে ভেঙে গেল করতোয়ার সাঁকো

পঞ্চগড় প্রতিনিধি   

১৩ জুলাই, ২০২০ ১৭:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উজানের ঢলে ভেঙে গেল করতোয়ার সাঁকো

কয়েক দিনের বৃষ্টিপাত আর উজানের ঢলে ভেঙে গেছে পঞ্চগড়ের মীরগড় এলাকার করতোয়া নদীর কাঠের সাঁকোটি। প্রবল পানি চাপে রবিবার মধ্য রাতে প্রায় ৪০০ মিটার দীর্ঘ সেতুটির অধিকাংশই নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এতে ধাক্কামারা ও গড়িনাবাড়ি ইউনিয়নের সাথে ওপারের সাতমেরা ও দেবনগর ইউনিয়নের লাখো মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তাদেরকে এখন বিকল্প পথে বাড়তি ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার ঘুরে যেতে হচ্ছে।

এদিকে কয়েকদিনের টানা বর্ষণ আর উজানের ঢলে পঞ্চগড়ের সব নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। নদীতে পানি বাড়ার সাথে সাথে নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হতে শুরু করেছে। নিচু এলাকার ঘরবাড়িতে পানি প্রবেশ করেছে। পঞ্চগড় পৌরসভার নিচু এলাকাগুলো কয়েক শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। ঘরবাড়িতে পানি উঠায় তারা নিকটস্থ আশ্রয় কেন্দ্রে উঠেছেন।

এ ছাড়া তেঁতুলিয়া উপজেলার নিচু এলাকার কয়েক শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ভজনপুর ইউনিয়নের গোলাপদীগছ ও আঠারখড়ি গ্রামের কিছু পরিবার চারপাশে পানিবন্দি হয়ে পড়েছিল। রবিবার বিকেলে তাদের উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায় তেঁতুলিয়া ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা। বর্ষণ অব্যহত থাকলে দুএকদিনের মধ্যেই পানি বিপদ সীমা অতিক্রম করবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। তবে বৃষ্টিপাত কমে গেলে পানি নেমে যাবে শিগগিরই।

পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল মান্নান বলেন, পঞ্চগড়ে উজানের ঢলে পানি বাড়লেও তা আবার দ্রুতই কমে যায়। আমরা প্রতিনিয়ন খোঁজ খবর নিচ্ছি কোথাও মানুষ পানিবন্দি হয়েছে কিনা। নিচু এলাকার অল্পকিছু মানুষ পানিবন্দি হয়েছে বলে আমরা জেনেছি। তাদের মাঝে আমরা শুকনো খাবার বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা