kalerkantho

বুধবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৭। ৫ আগস্ট  ২০২০। ১৪ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রামে কমেছে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ জুলাই, ২০২০ ১৭:১৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চট্টগ্রামে কমেছে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে একজন এবং কভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়েছে পাঁচজন। নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১৯২ জনের দেহে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১১ হাজার ৩৮৫ জন। 

শনিবার (১১ জুলাই) সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় (শুক্রবার) চট্টগ্রামে ১০৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ১৯২ জন। এদের মধ্যে নগরে ১৫৮ জন এবং উপজেলায় ৩৪ জন। এ ছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২১৪ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে পাঁচজন। এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে ১৩১৩ জন।

চট্টগ্রামের ছয়টি ল্যাব এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজে সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলার নমুনাসহ মোট ১০৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৪৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪৫ জন করোনা পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়। তার মধ্যে নগরীর ২৬ জন জেলার বিভিন্ন উপজেলার ১৯ জন পজিটিভ পাওয়া যায়। 

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ২২৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় আরো ২৫ জন। এর মধ্যে নগরের ২১ জন, জেলার বিভিন্ন উপজেলার চারজন পজিটিভ। 

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ২৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জন করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। ১৪ জনই নগরের বাসিন্দা। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে ১২২টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। যার মধ্যে নগরের ৯ জন, জেলার একজন পজিটিভ। কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজে সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলার ১৮টি নমুনা পরীক্ষায় একজনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। তিনি সাতকানিয়া উপজেলার বাসিন্দা। 

এ ছাড়া বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ১৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩৯ জন পজিটিভ পাওয়া যায়। তার মধ্যে নগরীর ৩৬ জন, জেলার বিভিন্ন উপজেলার তিনজন পজিটিভ। শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে গত দুদিনে ১৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫৮ জন শনাক্ত হয়। তার মধ্যে নগরীর ৫২ জন, জেলার বিভিন্ন উপজেলার ছয়জন পজিটিভ। এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার বাসিন্দা। করোনা থেকে সুস্থ হওয়া পাঁচজনই নগরের বাসিন্দা। 

এ ছাড়া জেলার বিভিন্ন উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত শনাক্তের মধ্যে সাতকানিয়ার একজন, বাঁশখালীর তিনজন, রাঙ্গুনিয়ার একজন, রাউজানের পাঁচজন, ফটিকছড়ির তিনজন, হাটহাজারীর ১৩ জন, সীতাকুণ্ডের পাঁচজন এবং মিরসরাইয়ের তিনজন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা