kalerkantho

রবিবার। ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭। ৯ আগস্ট ২০২০ । ১৮ জিলহজ ১৪৪১

বিচার চাইতে এসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার নারী, গ্রেপ্তার ৩

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুলাই, ২০২০ ০১:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিচার চাইতে এসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার নারী, গ্রেপ্তার ৩

ঢাকার কেরানীগঞ্জে বিচার চাইতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন এক নারী। পরে ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব। শুক্রবার ভোরে উপজেলার আগানগর ইউনিয়নের নাগরমহল রোড চেয়ারম্যান মার্কেটের নিচতলা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১০ সিপিসি ২ এর ডিএডি বদিউল আলম জানান, ধর্ষিতা নারী সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণসহ র‌্যাব অফিসে অভিযোগ করলে অভিযোগের ভিত্তিতে কেরানীগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার এ এস পি মো. আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে নাগর মহল রোডের চেয়ারম্যান মার্কেটের নিচ তলায় ইব্রাহিমের ইন্টারনেট অফিসে অভিযান পরিচালনা করে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন- ধষর্ণকারী মো. তাইজুল ইসলাম (বাপ্পি) (২৩), ও তার সহযোগী মো. ইব্রাহিম (২৮) এবং মো. একরাম (১৮)।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, যে অফিসে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয় সেটি একটি ক্লাব ছিল। ক্লাবের বখাটে কিশোরা কয়েকদিন পর পরই ছিনতাইসহ নানা রকমের অপকর্মে লিপ্ত থাকত। গত কয়েকদিন আগে ধর্ষিতা নারী তার পারিবারিক এক বিচার নিয়ে আসে মো. ইব্রাহিমের কাছে। ইব্রাহিম তার পারিবারিক বিষয়টি বিচার করে দেয়। বিচারের পরে মেয়েটি বাসায় চলে যায়।

এর কিছুক্ষণ পরে আবার মেয়েটিকে অফিসে ডেকে নিয়ে এসে পালাক্রমে তিন ধর্ষক তাকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় মেয়েটি মেডিক্যাল টেস্ট ও ধর্ষণের প্রমাণসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কাছে অভিযোগ দেয়। অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে। 

ধর্ষিতা বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানায় র‌্যাব-১০।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা