kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

কবর থেকে তুলে শিশুর লাশ রাস্তায়, পরে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের গোরস্তানে দাফন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১০ জুলাই, ২০২০ ১০:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কবর থেকে তুলে শিশুর লাশ রাস্তায়, পরে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের গোরস্তানে দাফন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ঘাটুরায় এক নবজাতকের লাশ কবর থেকে তুলে রাস্তায় ফেলে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বজনদের অভিযোগ, ওই শিশুটি আহমদিয়া সম্প্রদায়ের হওয়ায় এমন অমানবিক কাণ্ড ঘটানো হয়েছে। পরে ওই শিশুকে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে দাফন করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফেনী সদর উপজেলার বাসিন্দা সাইফুল ইসলামের স্ত্রী স্বপ্না বেগম গত ৭ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খ্রিস্টিয়ান মেমোরিয়াল হাসপাতালে কন্যাসন্তানের জন্ম দেন।  কয়েক মাস ধরে তিনি বাবার বাড়ি ঘাটুরায় অবস্থান করছিলেন। নির্ধারিত সময়ের আগে ভূমিষ্ঠ শিশুটি বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে মারা যায়।  সকাল ৭টার দিকে শিশুটির লাশ ঘাটুরার কবরস্থানে দাফন করা হয়।

শিশুটির বাবা সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করেন, মাইকিং করে আহমদিয়া সম্প্রদায়বিদ্বেষীদের জড়ো করা হয়। এরপর লাশ কবর থেকে তুলে কবরস্থানের সীমানাপ্রাচীরের বাইরের রাস্তায় ফেলে রাখা হয়। তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সেটা তারা জানতে পারেননি। পরবর্তী সময়ে পুলিশি পাহারায় সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কান্দিপাড়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে শিশুটির লাশ দাফন করা হয়।

সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাদ হাজারী আঙ্গুর জানান, আহমদিয়া সম্প্রদায়ের লোকজনকে এ গ্রামের কবরস্থানে দাফনে স্থানীয়দের আপত্তি আছে। খবর পেয়ে গিয়ে দেখি লাশ কবরস্থানের বাইরে। পরে কান্দিপাড়া এলাকায় তাদের সম্প্রদায়ের কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন রেজা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। দুই পক্ষ নিজেরাই বিষয়টি সমাধান করে ফেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা