kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

৬ দিনের ব্যবধানে করোনা উপসর্গে দুই সহোদরের মৃত্যু

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

১০ জুলাই, ২০২০ ০৫:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৬ দিনের ব্যবধানে করোনা উপসর্গে দুই সহোদরের মৃত্যু

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে করোনা উপসর্গে ৬ দিনের ব্যবধানে দুই সহোদর মারা গেছেন। মৃত দুই সহোদর হলেন, উপজেলার উত্তরহাওলা ইউনিয়নের হাতিমারা গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক মো. জামাল উদ্দিন মানিক (৫৩) এবং মো. জহিরুল ইসলাম স্বপন (৩৮)। এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

মনোহরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মো. জামাল উদ্দিন মানিক (৫৩) কয়েকদিন ধরে বাড়িতে জ্বর, গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গে ভুগছিলেন। এমতবস্থায় তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গত ২ জুলাই কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই দিনই করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনাও সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু রিপোর্ট আসার আগেই পর দিন শুক্রবার ভোরে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এদিকে মো. জামাল উদ্দিন মানিকের ছোট ভাই মো. জহিরুল ইসলাম স্বপনেরও (৩৮) একই উপসর্গ থাকায় গত রবিবার (৬ জুলাই) মনোহরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা সন্দেহে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতাল ল্যাবে পাঠায়।

এ সময় তারও শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দিলে তাকেও দ্রুত কুমেক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। অবশেষে বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনিও মারা যান।

এলাকাবাসীর ধারনা, পল্লী চিকিৎসক দুই সহোদর যেকোনো ভাবে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। তবে রিপোর্ট পাওয়ার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ওইদিন চরমোনাই পীরের অনুসারী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ'র মনোহরগঞ্জ উপজেলায় দায়িত্বরত স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে ওই যুবকের মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করেন।

মনোহরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নিসর্গ মেরাজ চৌধুরী দুই সহোদর করোনা উপসর্গে মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা