kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

নানা বাড়ি যাওয়া হলো না মিমির

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৯ জুলাই, ২০২০ ২২:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নানা বাড়ি যাওয়া হলো না মিমির

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় মামার বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার সময় বাবার মোটরসাইকেলের সমানে থেকে পড়ে মিমি আকতার (৮) নামে এক মাদরাসার শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ধুনট-জোড়শিমুল পাকা সড়কের আনারপুর সেতুর মোড়ে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত মিমি আকতার সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার উত্তর পাইকপাড়া গ্রামের টুটুল মিয়ার মেয়ে এবং ঢাকায় একটি মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, মিমির মা-বাবা ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। কর্মস্থল থেকে ছুটি নিয়ে বুধবার সন্ধ্যার দিকে গ্রামের বাড়িতে আসেন। বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে টুটুল মিয়া তার স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল চালিয়ে পারধুনট গ্রামে শ্বশুর বাড়ির দিকে রওনা হন। স্ত্রীকে পিছনে এবং মেয়ে মিমিকে সামনে বসিয়ে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন টুটুল মিয়া।

সন্ধ্যার দিকে পথিমধ্যে আনারপুর সেতুর মোড়ে চালক নিয়ন্ত্রন হারালে মোটরসাইকেলটি রাস্তার পাশে খাদে পড়ে। এ সময় মোটরসাইকেলের সামনে বসা মিমি আকতার পড়ে গিয়ে মারা গেছে। তবে মিমির মা ও বাবা সামান্য আহত হয়েছেন। স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মিমিকে মৃত ঘোষণা করেন।

ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রিপন কুমার বলেন, দূর্ঘটনার পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পৌছার আগেই মিমি আকতারের মৃত্যু হয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়ার সুযোগ হয়নি। তবে মিমির মা-বাবাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে মিমির মৃতদেহ তার স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা