kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

মাছ ধরার ফাঁদ বেচতে গিয়ে পিতাপুত্র খুন

নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি   

৫ জুলাই, ২০২০ ০৯:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাছ ধরার ফাঁদ বেচতে গিয়ে পিতাপুত্র খুন

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার কলারদোয়ানিয়া ইউনিয়নের কলারদোয়ানিয়া গ্রামের মো. হেলাল উদ্দিন (৫৬) ও ইয়াছিন হাওলাদার (২০) বরিশালের বাকেরগঞ্জে মাছ ধরার ফাঁদ (চাঁই) বিক্রয় করতে গিয়ে খুন হয়েছেন। শুক্রবার বেচাকেনা শেষে ফেরার পথে উপজেলার চরলক্ষ্মীপাশা গ্রামের পাণ্ডব নদীর তীরে বাবা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

নিহত হেলাল উদ্দিনের বড় ভাই মো. বাদশা হাওলাদার জানান, গত এক সপ্তাহ আগে তার ভাই ও ভাতিজা ভাড়া ট্রলার ‘মায়ের পরশ’ নিয়ে বাকেরগঞ্জে মাছ ধরা ‘চাঁই’ বিক্রয় করতে যান। শুক্রবার সকালে ওই এলাকার শতরাজ বাজারে চাঁই বিক্রি করে বিকালে শিয়ালঘুনি হাটে যান। বেচাকেনা শেষে ফেরার পথে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা চরলক্ষ্মীপাশা গ্রামে বাবা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা করে তাদের কাছে থাকা দেড় লাখ টাকা ও একটি ট্রলার ছিনতাই করে নিয়ে যায়। তাদেরকে গলা কেটে হত্যা পর পাণ্ডব নদীতে লাশ ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার রাতে নদীর তীরে স্থানীয়রা লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ছেলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। তাৎক্ষণিকভাবে তার পরিচয় পাওয়া না গেলেও পরে চাচা মো. বাদশা হাওলদার লাশ দেখে ইয়াছিনের পরিচয় নিশ্চিত করেন। শনিবার সকালে একই নদীতে হেলাল উদ্দিনের ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশ খবর দেয়।

বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল কালাম জানান, বাবা-ছেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ট্রলার ও সঙ্গে থাকা টাকা ছিনতাই করতে কোনো ডাকাত দল বা দুর্বৃত্ত চক্র এ ঘটনা ঘটিয়েছে। হত্যার সঙ্গে আর কোনো কারণ জড়িত আছে কিনা তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা