kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৪ আগস্ট ২০২০ । ২৩ জিলহজ ১৪৪১

চসিক মেয়র বললেন

গুরুত্ব বিবেচনায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৪ জুলাই, ২০২০ ১৮:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুরুত্ব বিবেচনায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে

ফাইল ছবি

করোনাকালে বিরূপ পরিস্থিতি, সীমাবদ্ধতা ও আর্থিক সংকটের মধ্যেও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কোনো কর্মপরিকল্পনাই থেমে থাকছে না। নগরীর সড়ক যোগাযোগসহ বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাস্তবায়নের গতি ক্ষেত্রবিশেষে শ্লথ হলেও গুরুত্ব বিবেচনায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এগুলোর কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

শনিবার পোর্ট কানেকটিং (পিসি) রোডের তাসফিয়া থেকে সাগরিকা মাজার পর্যন্ত এবং সাগরিকা মাজার থেকে অলংকার পর্যন্ত চলমান উন্নয়নকাজ পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন। ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে প্রকল্পটি কিছুটা পিছিয়ে গেলেও আগামী নভেম্বর মাসের মধ্যেই শেষ করে আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

তাসফিয়া থেকে সাগরিকা মাজার পর্যন্ত ১ হাজার ৫৪৩ মিটারের এ কাজের জন্য ৪০ কোটি টাকা এবং সাগরিকা মাজার থেকে অলংকার পর্যন্ত ৭৫০ মিটার সড়ক নির্মাণে ২৮ কোটি টাকা ব্যয় করছে জাইকা। ইতোমধ্যে এ প্রকল্পের কাজ প্রায় সিংহভাগ সম্পন্ন হয়েছে এবং বর্তমানে শেষ পর্যায়ে রয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন বর্ধিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে জনবল বাড়ানো ও দিনে-রাতে কাজ করার জন্য ঠিকাদার ও প্রকৌশলীদের নির্দেশনা দেন মেয়র।

এ সময় মেয়রের সহকারী একান্ত সচিব রায়হান ইউসুফ, চসিক তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদীপ বসাক, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সাদাত মোহাম্মদ তৈয়ব, সহকারী প্রকৌশলী আনোয়ার জাহান, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) তৌহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ বেলাল আহমেদ, আনিসুর রহমান চৌধুরী, এসএম মামুনুর রশীদ, জসিম  উদ্দীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা