kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭। ৭ আগস্ট  ২০২০। ১৬ জিলহজ ১৪৪১

সওজ এর ট্রাকচালক করছেন মহাসড়ক সংস্কারের কাজ!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

৩ জুলাই, ২০২০ ১২:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সওজ এর ট্রাকচালক করছেন মহাসড়ক সংস্কারের কাজ!

সড়ক ও জনপথের (সওজ) ট্রাকচালক নিজেই তদারকি ছাড়াও মহাসড়ক সংস্কারের কাজ করছেন কয়েকজন শ্রমিক নিয়ে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ধরনের দৃশ্য চোখে পড়ে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইলের দশালিয়া নামক স্থানে।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, চলতি বর্ষায় এই সড়কটির বিভিন্ন জায়গায় বড়বড় ফাটল ছাড়াও ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এমতাবস্থায় মাঝে মধ্যেই সড়কটির সংস্কার করে কিশোরগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ। তারা একটি ট্রাকে করে পাথর ও বালু নিয়ে ট্রাকের ওপরেই একটি চুলোয় আগুন ধরিয়ে পিচ গলায়। আর তা দিয়েই দৃশ্যমান ফাটল ও গর্ত ভরাট করে। কয়েকদিন যেতে না যেতেই ফের ওইসব গর্ত ও ফাটল আগের অবস্থায় ফিরে আসে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার একই অবস্থায় কিশোরগঞ্জ থেকে নান্দাইলের কানুরামপুর পর্যন্ত সড়কের সংস্কার কাজে নামে সওজের একটি দল। বেশ কতক্ষণ কাছে থেকে দেখা যায় গর্তের বা ফাটলের মধ্যে পানি বা ময়লা আর্বজনা জমে থাকলেও সেগুলো পরিষ্কার না করেই কোনো মতে হাতে করে পাথর এনে ভিতরে দিয়ে পা দিয়ে চাপ দেওয়া হচ্ছে। এরপর চুলোয় জাল দেওয়া এক ধরনের কালো রঙের তরল পদার্থ ঢেলে দিয়ে তার ওপর ভেজা বালু ছিটিয়ে দেওয়া হচ্ছে। দাঁড়িয়ে থেকে দেখা যায়, সাথে সাথে চলন্ত যানবাহন এর ওপর দিয়ে চলাচল করলেই চাকার সাথে উঠে আসছে। জানতে চাইলে ফজলু নামে ট্রাকচালক এগিয়ে এসে বলেন, এটা তদারকি তিনিই করছেন। সেই সাথে শ্রমিকদের সাথে কাজও করছেন। এখানে তো একজন কর্মকর্তা বাবা ইঞ্জিনিয়ার থাকার কথা জানতে চাইলে ট্রাকচালক ফজলু মিয়া হেসে বলেন, ‘এইডা তো সামান্য কাজ এখানে স্যারেরার আসতে হয় না। আমিই যথেষ্ট।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কিশোরগঞ্জ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী রাশেদুল আলম কালের কণ্ঠকে বলেন, আমাদের লোকবল কম। তারপরও সেখানে একজন উপ প্রকৌশলী থাকার কথা। এই রকম তো হওয়ার কথা নয়। বিষয়টির খোঁজ নিচ্ছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা