kalerkantho

রবিবার। ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭। ৯ আগস্ট ২০২০ । ১৮ জিলহজ ১৪৪১

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে গলা কেটে হত্যা করল স্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ জুলাই, ২০২০ ০৫:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে গলা কেটে হত্যা করল স্ত্রী

প্রতীকী ছবি

পঞ্চগড়ে পরকীয়ার জেরে প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে এক স্ত্রী তার স্বামীকে গলা কেটে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ভোরে তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত ব্যক্তির নাম জহুর আলী (৬৫)। তার বাড়ি আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের গাঠিয়াপাড়া এলাকায়। অভিযুক্তরা হলেন- জহুর আলীর দ্বিতীয় স্ত্রী জাহেদা বেগম (৪৫) ও তার প্রেমিক ইদ্রিস আলী (৫০)। 

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, জহুর আলীর দ্বিতীয় স্ত্রী জাহেদা বেগমের সঙ্গে আটোয়ারী উপজেলার সাতখামার এলাকার ইদ্রিস আলীর গোপনে প্রেম চলছিল।  করোনা পরিস্থিতিতে বেকার হয়ে পড়েন জহুর আলী। বুধবার ইদ্রিস কৌশলে জাহেদা ও জহুর আলীকে পাথর ভাঙার কাজ দেওয়ার কথা বলে বাংলাবান্ধায় নিয়ে যান। সেখানে হকিকুল ইসলামের একটি ঘর ভাড়া নেয় তারা। ওই ঘরে অন্য শ্রমিকরাও ভাড়া থাকেন। বৃহস্পতিবার ভোরে জহুর আলী তার স্ত্রী ও ইদ্রিসকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলেন। এ সময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জহুর আলীর গলায় ছুরি চালিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান ইদ্রিস ও জাহেদা।

পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য ইদ্রিস আলীর লাশ পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

তেতুঁলিয়া মডেল থানার উপপরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আবু সাঈদ চৌধুরী জানান, ‘বৃহস্পতিবার ভোর রাতে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় জহর আলীকে তেতুঁলিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করে। 

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময়ই তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর আগে ঘাতকদের নাম বলে গেছেন নিহত ওই ব্যক্তি। এ সময় স্থানীয় এক ব্যক্তি তার কথাগুলো ভিডিও ধারণ করে। ওই ভিডিওতে ইদ্রিস ও জাহেদা তার গলায় ছুরি চালিয়ে দিয়ে পালিয়ে গেছে বলে জানায়।’

ওসি আরো জানান, ওই বৃদ্ধের লাশ ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতিও চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা