kalerkantho

সোমবার  । ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭। ৩ আগস্ট  ২০২০। ১২ জিলহজ ১৪৪১

বানের পানিতে ভেসে গেল খামারির পাঁচ বছরের স্বপ্ন

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২ জুলাই, ২০২০ ২৩:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বানের পানিতে ভেসে গেল খামারির পাঁচ বছরের স্বপ্ন

সুনামগঞ্জের ছাতকে আকস্মিক বন্যার পানিতে ভেসে গেছে এক খামারির পাঁচ বছর ধরে লালন করা ৪টি খামারের প্রায় কোটি টাকা মূল্যের মাছ। উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের গোদাবাড়ী এলাকায় মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দুল মোমিন ১৬৪ কেদার ভূমিতে করেছিলেন ৪টি মৎস্য খামার। এলাকার সর্ববৃহৎ মৎস্য খামারটি আব্দুল মোমিনের। 

এছাড়া পোনা উৎপাদন ও লালনপালনের জন্য আরো দু'কেদার ভূমিতে রয়েছে একটি বড় পুকুর। প্রলয়ঙ্কারী বন্যায় তার খামারের প্রায় কোটি টাকা মূল্যের মাছ ভেসে গেছে।

খামার মালিক গোদাবাড়ী গ্রামের আব্দুল মোমিন জানিয়েছেন, কল্পনার মধ্যেও ছিল না, এত দ্রুত বন্যা এই এলাকায় আসবে। নিজের পরিশ্রমের ঘামে খামারটি গড়ে তুলেছেন। রাত-দিন খামার নিয়েই থেকেছেন। কিন্তু কে জানত তাঁর এমন সর্বনাশ হবে। এক রাতের মধ্যে বন্যার পানিতে সব পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। মাছের জন্য প্রায় ১০ থেকে ১৫ লাখ টাকার খাবার ছিল। সেটাও পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে। 

গত ৫ বছর ধরে এসব খামারের মাছ তিনি শুধু বাড়িয়েই যাচ্ছেন। কোনো মাছ বিক্রি করেননি। ৫ বছরের লালন পালনকৃত মাছগুলোর সাথে বন্যার পানিতে ভেসে গেছে তার স্বপ্নও। তিনি জানান খামারে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা খরচ হতো। খামারগুলো ভেসে যাওয়ায় তার ১ কোটি টাকার চেয়েও বেশি ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার মনিরুজ্জামান জানান, প্রাথমিকভাবে বন্যায় প্লাবিত উপজেলার সবগুলো খামারের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারিত করা সম্ভব হয়নি। তবে অধিকাংশ খামারিরাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা