kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ শ্রাবণ ১৪২৭। ৬ আগস্ট  ২০২০। ১৫ জিলহজ ১৪৪১

নারায়ণগঞ্জের করোনা হাসপাতাল পেল ১০ শয্যার আইসিউ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

২ জুলাই, ২০২০ ১৭:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের করোনা হাসপাতাল পেল ১০ শয্যার আইসিউ

দীর্ঘ আড়াই মাস পর নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর এলাকায় ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট করোনা হাসপাতালে ১০ শয্যার কাঙ্ক্ষিত আইসিউ ইউনিট (নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র) চালু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. জসীম উদ্দিন, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. গৌতম রায়, আবাসিক চিকিৎসক সামসুদ্দোহা সরকার সঞ্চয়, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, জেলা করোনা ফোকাল পার্সন ডা. জাহিদুল ইসলাম এবং সিটি করপোরেশনের স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকুসহ জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের অন্য কর্মকর্তারা।

আইসিউ ইউনিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান অদূর ভবিষ্যতে এই আইসিউ ইউনিটকে ৫০ শয্যায় এবং পুরো হাসপাতালকে ৫০০ শয্যায় উন্নীতসহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তর করার পরিকল্পনার কথা জানান। পাশাপাশি হাসপাতালে ঠিকাদারি ব্যবসার মাধ্যমে নানা ধরনের অনিয়ম, দুর্নীতি ও অর্থ আত্মসাতের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসককে নির্দেশনাও দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক আইসিউ ইউনিট সুশৃঙ্খলভাবে ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনা করতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলাকে করোনার হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ৩০০ শয্যার এই হাসপাতালটিকে করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা প্রদানসহ পিসিআর ল্যাব হিসেবে প্রস্তুত করা হয়। ১০ এপ্রিল এই হাসপাতালে শহরের একমাত্র প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টার এবং ৬ মে পিসিআর ল্যাবের উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। তবে করোনা রোগীদের সর্বোচ্চ চিকিৎসাসেবা প্রদানের কথা থাকলেও প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে গত আড়াই মাসে আইসিইউ ইউনিট চালু না হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে শত শত মানুষ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা