kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৪ আগস্ট ২০২০ । ২৩ জিলহজ ১৪৪১

গৃহবধূর আত্মহত্যা, বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি   

২ জুলাই, ২০২০ ১৬:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৃহবধূর আত্মহত্যা, বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু

বিশ্বনাথে ফাতেমা বেগম (২১) নামের এক গৃহবধূ গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। তিনি উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের শেখেরগাঁও গ্রামের জামিল আহমদের (২৪) স্ত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। বুধবার রাতে কোনো একসময় স্বামী ও তার পরিবারের অজান্তে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণ করছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, (১ জুলাই) বুধবার রাতে স্বামীসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে রাতে খাবার খেয়ে প্রতিদিনের মতো নিজ বসতঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে স্বামী ঘুম থেকে উঠে স্ত্রীকে খুঁজতে থাকেন। কিন্তু ঘরের ভেতরের স্বামী স্ত্রী কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বসতঘরের পেছনের রুমে ঝুলন্ত অবস্থায় স্ত্রীকে দেখতে পান স্বামী। তবে কি কারণে গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন তার কারণ জানা যায়নি।

বিশ্বনাথ থানার এসআই ওসমান আলী বলেন, গৃহবধূর লাশটি উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। 

অপরদিকে, নওগাঁর ধামইরহাটে বিদ্যুৎস্পৃর্শে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত নানাইচ বেগুনবাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধামইরহাট পবিস ২ এর এজিএম মো. আবু হানিফ এবং ওই এলাকার ইউপি সদস্য মো. রশিদুল ইসলাম বলেন, কৃষক নুরল ইসলাম (৫৬) নিজ শয়নকক্ষে ফ্যানের সাথে বিদ্যুৎ লাইনের সংযোগ দেওয়ার সময় অসাবধানতাবশত বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে সে মারা যায়। কৃষক নুরল ইসলাম ওই গ্রামের মৃত সমশের মন্ডলের ছেলে।

ধামইরহাট থানার ওসি মো. আব্দুল মমিন বলেন, বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা