kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত নয়, অন্য কারণে খুন হন রিপন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ জুন, ২০২০ ১১:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত নয়, অন্য কারণে খুন হন রিপন

যশোরের বাঘারপাড়ায় প্রাইভেট কারচালক রিপন হত্যার আসল কারণ জানা গেল। ইতোমধ্যে হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বরকতুল্লাহ খান। গতকাল সোমবার যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মঞ্জুরুল ইসলাম জবানবন্দি শেষে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

রিপনের হত্যাকারী বরকত যশোর শহরের বারান্দী মোল্যাপাড়ার মৃত মাহফুজুর রহমানের ছেলে। জবানবন্দিতে বরকতুল্লাহ স্বীকার করেছেন, স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত নয়, মোটরসাইকেল মেরামত নিয়ে বাগবিতণ্ডার পর হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

বরকত আদালতকে জানান, রবিবার দুপুরে দ্বিতীয় স্ত্রী পিংকিকে নিয়ে বাঘারপাড়া উপজেলা শহরে গিয়েছিলেন তিনি। তার মোটরসাইকেলের যান্ত্রিক ত্রুটি ছিল। মেরামতের জন্যে বাঘারপাড়া মাইক্রো স্ট্যান্ডে শিমুলের গ্যারেজে যান তিনি। এ নিয়ে শিমুলের সঙ্গে তার বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাকে কিলঘুষি মারেন বরকত। এমন ঘটনা দেখে পাশে থাকা মহিরণ গ্রামের মধ্যপাড়ার মনিরুল ইসলামের ছেলে শওকত হোসেন রিপনসহ কয়েকজন সেখানে এগিয়ে যান। ঘটনার এক পর্যায়ে বরকত রিপনকে চাকু দিয়ে বুকে আঘাত করেন। এতে রিপন মাটিতে পড়ে যান।

তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা প্রথমে বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রিপনকে মৃত ঘোষণা করেন। ওইদিনই বরকতুল্লাহকে আটক করা হয়। একই দিন বাঘারপাড়া থানায় মামলা করা হয়। সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হলে জবানবন্দি প্রদান করেন বরকতুল্লাহ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঘারপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা