kalerkantho

রবিবার । ২১ আষাঢ় ১৪২৭। ৫ জুলাই ২০২০। ১৩ জিলকদ  ১৪৪১

কালের কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর

হত্যা মামলার আসামির ধর্ষণের শিকার শিশু উদ্ধার

বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি   

৬ জুন, ২০২০ ০২:৩৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হত্যা মামলার আসামির ধর্ষণের শিকার শিশু উদ্ধার

বরিশালের উজিরপুরে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় সংবাদ প্রকাশের পরে অতঃপর ভিকটিমকে উদ্ধার ও থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ৪ জুন রাতে দৈনিক কালের কণ্ঠের অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হলে শুক্রবার (৫ জুন) সকালে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জিয়াউল আহসানের নির্দেশে পুলিশ উপজেলার জল্লা গ্রামে ভিকটিমকে উদ্ধার করতে যায়। সেখানে তাকে না পেয়ে তার এক আত্মীয়র আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সার হাট এলাকার বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। 

এরপর ওই দিন ভিকটিমের মা সেলিনা বেগম বাদী হয়ে একই এলাকার লম্পট আয়নাল হক হাওলাদার ভদ্দর (৬৫)'র বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

এ প্রসঙ্গে উজিরপুর মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান জানান, ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে এবং আসামিকে গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, আলোচিত ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু হত্যা মামলার আসামি জল্লা গ্রামের লম্পট আয়নাল হক হাওলাদার ওরফে ভদ্দর (৬০) একই বাড়ির নাসির উদ্দিন হাওলাদারের মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া শিশু শিক্ষার্থীকে (১২) গত শনিবার দুপুর ১টায় নিজ বসতঘরে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটির পড়নের কাপড় চোপড় ছেড়া অবস্থায় কাঁদতে কাঁদতে মায়ের কাছে গিয়ে বিষয়টি বলে দেয়। 

ঘটনার সময় লম্পট আয়নাল হকের স্ত্রী ঢাকায় ছিল। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হলেও বিষয়টি ধামাচাপা দিতে প্রভাবশালীদের তৎপরতায় পাঁচদিনেও আইনি সহায়তা পেতে থানায় যেতে পারেনি ধর্ষিতার পরিবার। উপরন্তু ভয়ে সমঝোতায় রাজি হয় ভিকটিমের অসহায় পরিবার। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সরেজমিনে সাংবাদিকরা গেলে ছাত্রী ও তার বাবা-মা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। ঘটনার পর থেকে লম্পট আয়নাল হক বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। 

উল্লেখ্য, আয়নাল হক আলোচিত জল্লা ইউপির সাবেক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু হত্যা মামলার আসামি। এছাড়া সে আরো এক শিশু ধর্ষণের চেষ্টা ও ইউপি চেয়ারম্যান হত্যা মামলায় দীর্ঘদিন যাবৎ জেল হাজতবাস করেছিল। তার বিরুদ্ধে এ দুটি মামলা চলমান রয়েছে। ওই হত্যা মামলায় তার মেয়ে জামাতা ঢাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী রাব্বিও অন্যতম আসামি বলে জানা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা