kalerkantho

বুধবার । ২৪ আষাঢ় ১৪২৭। ৮ জুলাই ২০২০। ১৬ জিলকদ  ১৪৪১

করোনা উপসর্গে মৃত্যু, লাশ পাশে নিয়ে সারারাত বসেছিলেন স্ত্রী-সন্তান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ জুন, ২০২০ ২০:৩৩ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



করোনা উপসর্গে মৃত্যু, লাশ পাশে নিয়ে সারারাত বসেছিলেন স্ত্রী-সন্তান

করোনা উপসর্গে মৃত লাশ ১২ ঘণ্টা পর দাফন করে সেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীদের টিম। তার আগে লাশ নিয়ে সারারাত বসেছিলেন মৃতের স্ত্রী-সন্তান। এগিয়ে আসেনি কেউ। কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের বাগুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ১০টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান বাগুর পশ্চিমপাড়ার মৃত সৈয়ত আলীর ছেলে আবুল হোসেন (৪৫)। তিনি গত কয়েক দিন যাবৎ জ্বর-ঠাণ্ডা ও কাশিসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে ঘরে বসেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর পর তার আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসীর কেউ এগিয়ে আসেনি।

মৃত্যুর পর সমস্ত রাত লাশ নিয়ে বসে থাকেন অসহায় স্ত্রী-সন্তানরা। সকাল সাড়ে ১০টায় কুমিল্লা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লিটন সরকারের উদ্যোগে লাশের দাফন সম্পন্ন করা হয়।

সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লিটন সরকার জানান, একজন মানুষের মৃত্যুর পর লাশ দাফনে তার আত্মীয়-স্বজনরা এগিয়ে আসবে না এটা খুবই দুঃখজনক। করোনা রেডজোন খ্যাত দেবিদ্বারে এ সমস্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই করোনায় মৃত ব্যক্তিদের দাফনে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে ১০১ জনের একটি টিম গঠন করেছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা