kalerkantho

শনিবার । ২৭ আষাঢ় ১৪২৭। ১১ জুলাই ২০২০। ১৯ জিলকদ ১৪৪১

কক্সবাজারে সাড়া জাগিয়েছে 'সেনাবাজার'

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

৩ জুন, ২০২০ ১৪:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারে সাড়া জাগিয়েছে 'সেনাবাজার'

কক্সবাজারে করোনাভাইরাস ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে কর্মহীন, অসহায় ও ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী এবং কাঁচা বাজারের চাহিদা পূরণ করতে আজ বুধবার তৃতীয় বারের মতো সেনাবাজারের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন। রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজন করা হয় সেনাবাজারের।

এবারও গ্রামের প্রান্তিক কৃষকদের নিকট থেকে উপযুক্ত দামে সবজি সংগ্রহ করে বাজারে নিয়ে অসহায় ও দুস্থ ৫০০ পরিবারের মধ্যে বিনামূল্যে এ বাজার সুবিধা প্রদান করা হয়। ২ পদাতিক ব্রিগেডের তত্ত্বাবধানে আয়োজিত এই বাজার কার্যক্রম পরিদর্শন করেন রামু সেনানিবাসের ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তাবৃন্দ ও জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা। 

রামু সেনানিবাস সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার জুলেখার পাড়া, খিজারী পাড়া, সিপাহীপাড়া, মন্ডলপাড়া, ফতেখারকুল, মেরুংলোয়া, রশিদ নগর ও ঈদগাহ এলাকা থেকে সেনাসদস্য কর্তৃক বৌদ্ধ, হিন্দুসহ সকল সম্প্রদায়ের হত দরিদ্র মানুষের তালিকা তৈরি করে বিশেষ টোকেনের মাধ্যমে পণ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়। সেনা বাজারের প্রবেশ পথে সেনা সদস্যদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিল জীবাণুনাশক বুথ ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। 

সেনাবাজারে বাজার করতে আসা রামু, রশিদ নগর ও ঈদ্গাহ বাজারের বিনয় বড়ুয়া, সুশীল কর্মকার ও সোহেল বলেন, করোনার কারণে পর্যটন নগরীতে পর্যটক প্রবেশ বন্ধ থাকায় আমরা কুটির শিল্পের কর্মচারীরা অত্যন্ত কষ্টের মাঝে আছি। তাছাড়া বর্তমানে হাতে টাকা-পয়সা একদম নেই। সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে চাল, আটা, লবণ, তেল, আলু, বরবটি, কচুর লতি, লেবু, কাঁচামরিচসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পেয়ে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা