kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

‘কালের কণ্ঠকে ধন্যবাদ’

জলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি    

৩ জুন, ২০২০ ০৮:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘কালের কণ্ঠকে ধন্যবাদ’

‘জাত চেনাল জগত চন্দ্র’ শিরোনামে গত সোমবার কালের কণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদটির জন্য সংবাদপত্রটির সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) নাসরিন আফরোজ।

এই কর্মকর্তা বলেন, “সরেজমিন এমন লেখাগুলো পত্রিকায় প্রকাশ হলে অনেক প্রকৃত মেধাবী উপকৃত হবে। তাদের পড়ালেখা যেন টাকার অভাবে বন্ধ না হয়, সে জন্য কোনো দাতা সংস্থার আশায় নয়, আমাদের নিজস্ব তহবিলে ‘প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট’ গঠন করা হয়েছে। জগত চন্দ্রের মতো গরিব, অসহায়, মেধাবীদের জন্য সরকারের বরাদ্দ থাকবে।” 


জগত চন্দ্র

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের সহকারী পরিচালক (উপবৃত্তি) কাজি হাসিব উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ‘দুই লাখ ৯ হাজার ছাত্র-ছাত্রীকে স্নাতক ও সমমান পর্যায়ে চার হাজার ৯০০ টাকা করে সরকার শিক্ষা সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। কালের কণ্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত লেখাটি আংশিক নয়, পুরো সত্য ঘটনা তুলে এনেছে। তেমনই আমরা সত্যিই যাদের অর্থের জন্য উচ্চশিক্ষা বাধাগ্রস্ত হবে আশঙ্কা করছে, তাদের পাশে সরকার সব সময় আছে।’

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা চঞ্চল কুমার ভৌমিক বলেন, ‘সংবাদপত্র সত্যিই অনেক কিছুই বদলে দিতে পারে। যার বাস্তব প্রমাণ সোমবার কালের কণ্ঠ পত্রিকায় জাত চেনাল জগত চন্দ্র শিরোনাম। আমি অনেকটা অবাকই হয়েছি। ওপর হতে বড় বড় স্যারদের মোবাইল হতে রিং আসবে, ভাবতেই পারিনি। ধন্যবাদ পত্রিকা কর্তৃপক্ষকে। তাদের মাধ্যমেই তো জগত চন্দ্রের মতো দরিদ্র পরিবারের মেধাবীরা বিকাশ লাভ করে দেশ আলোকিত করবে।’

আলহাজ মোবারক হোসেন অনির্বাণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ মো. রোকনুজ্জামান রোকন চৌধুরী বলেন, ‘কালের কণ্ঠ জলঢাকা প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান স্টালিনসহ পত্রিকাটির সকলকে আমার প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। জগত চন্দ্রের বাস্তব কাহিনি আজ দেশের পাঠক মহলে তার পাশে দাঁড়াতে উৎসাহ জুগিয়েছে। আমরা তো এমন পত্রিকা চাই।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা