kalerkantho

শুক্রবার। ২৬ আষাঢ় ১৪২৭। ১০ জুলাই ২০২০। ১৮ জিলকদ ১৪৪১

চুনারুঘাটে সরকারি ত্রাণ পেল ২৫ হাজার ৮০০ পরিবার

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি    

৩ জুন, ২০২০ ০৬:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুনারুঘাটে সরকারি ত্রাণ পেল ২৫ হাজার ৮০০ পরিবার

করোনা মহামারির এই দুর্যোগ মুহূর্তে  হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় ২৫ হাজার ৮০০ পরিবার পেল সরকারি ত্রাণ। চা বাগান এলাকায় ত্রাণ পেয়েছে ৫ হাজার ৫০০ পরিবার। তবে পাহাড়ি ও চা বাগান অধ্যুষিত এ উপজেলায় যে পরিমাণ ত্রাণ এসেছে তা অপ্রতুল।

এক জরিপে দেখা গেছে, পৌনে পাঁচ লাখ জনসংখ্যা অধ্যুষিত চুনারুঘাট উপজেলায় লক্ষাধিকের উপরে গরীব অসহায় ও দিনমজুর পরিবার আছে। যাদের প্রতিদিনের আয়-রোজগারে ঘর সংসার চলে। চা বাগানে শ্রমিক আছে প্রায় ২২ হাজার। করোনার প্রভাবে কর্মহীন এই জনসাধারণের এখনো অনেকে সরকারি ত্রাণের আওতায় আসেনি। অনেকেই পড়েছেন খাদ্য সংকটে। 

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্লাবন পাল বলেন, করোনা সময়কালে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় হতে এই উপজেলায় ২৬০ মেট্রিক টন চাউলসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় খাবার কেনার জন্য ১৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে। এছাড়া শিশুদের পুষ্টিকর খাবার ও দুধ ক্রয়ের জন্য আসে ৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা। যার বেশিরভাগ জনসাধারণের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। আরো বরাদ্দ পাঠানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বরাদ্দ চলে আসবে। 

চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সত্যজিত রায় দাশ বলেন, বরাদ্দকৃত সরকারি ত্রাণ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও সরকারি অফিসারের মাধ্যমে বন্টন করা হয়েছে। করোনা সময়ে ত্রাণ প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। পর্যায়ক্রমে উপকারভোগীর সংখ্যা বাড়ানো হবে।
 
চুনারুঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল কাদির লস্কর বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ ও উপহার, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন  প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী এমপির পরামর্শক্রমে গরীব অসহায় মানুষের কাছে বন্টন করা হয়েছে। সরকারি উপকার পেয়েছেন ভবঘুরে, দিনমজুর, চা শ্রমিক, পরিবহন শ্রমিক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ। করোনা সময়কালে সরকারের ত্রাণ বন্টন অব্যাহত থাকবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা