kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ আষাঢ় ১৪২৭। ৩ জুলাই ২০২০। ১১ জিলকদ  ১৪৪১

এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা : উলিপুরে ২৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ পাস

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

২ জুন, ২০২০ ০৮:৩৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা : উলিপুরে ২৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ পাস

চলতি বছরের এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষায় কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায় ২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শতভাগ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। সেইসাথে উপজেলার ১০৯টি স্কুল ও মাদরাসা থেকে অংশগ্রহণকারী ৫ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছে ৪ হাজার ৪০২ জন শিক্ষার্থী। 

এই উপজেলায় মোট ২৭৬ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেলেও অকৃতকার্য হয়েছে ১ হাজার ৫৫ জন। এর মধ্যে ৫৪টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৫টি থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪৫ জন এবং ৫৫টি মাদরাসার ৬টি থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩১ জন শিক্ষার্থী । 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার ফলাফলে উপজেলার ৫৪টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪ হাজার ৮৮ জন পরীক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ৩ হাজার ১১৮ জন পরীক্ষার্থী পাস করেছে। এর মধ্যে ২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে শতভাগ পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। ২৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৪৫ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। 

অপরদিকে উপজেলার ৫৫টি মাদরাসা থেকে ১ হাজার ৩৬৯ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে ১ হাজার ২৮৪ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩১ জন শিক্ষার্থী। 

শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করা প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে, উলিপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও এনএস আমিন রেসিডেন্সিয়াল স্কুল।

উলিপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে সবাই উত্তীর্ণ হয়েছে এবং জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৮ জন।

এনএস আমিন রেসিডেন্সিয়াল স্কুল থেকে ১১৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে সবাই উত্তীর্ণ হয়েছে এবং জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮৮ জন পরীক্ষার্থী। 

এদিকে উপজেলার দূর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০ জন, উলিপুর মহারাণী স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজ থেকে ১৭ জন, থেতরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯ জন, দলদলিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮ জন, গোড়াই পঁচপীর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮ জন, বাগুয়া অনন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬ জন, উলিপুর আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬ জন, কদমতল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫ জন, গুনাইগাছ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫ জনসহ ২৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ২৪৫ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। 

অপরদিকে উপজেলার শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নাওড়া নাছিরিয়া দাখিল মাদরাসা থেকে ৪২ জন শিক্ষার্থী, যাদুপোদ্দার ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা থেকে ২০ জন, বিরহীম দাখিল মাদরাসা থেকে ১১ জন, নারিকেলবাড়ি দাখিল মাদরাসা থেকে ১৪ জন, দলদলিয়া সিদ্দিকিয়া দাখিল মাদরাসা থেকে ২৪ জন, ধামশ্রেনী রেজিয়া জেলেখা দাখিল মাদরাসা থেকে ১৪ জন, আদর্শ এতিম খানা আলিম মাদরাসা থেকে ২৩ জন, খামার আদর্শ বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে ২৩ জন, উলিপুর আলিয়া আলিম মাদরাসা থেকে ২৭ জন, নুরেশ্বর আমিনিয়া আলিম মাদরাসা থেকে ১০ জন, দেলজানিয়া দাখিল মাদরাসা থেকে ১৯ জন, মুন্সিপাড়া রহমানিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে ১০ জন, উত্তর পান্ডুল গাবতলী টি হোসেন দাখিল মাদরাসা থেকে ৩৮ জন, বজরা আলিফিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে ১৯ জন, উলিপুর মদিনাতুল উলুম দাখিল মাদরাসা থেকে ১৩ জন, মাটিয়াল মোজাদ্দেদিয়া দাখিল মাদরাসা থেকে ৭ জন,  নিজাইখামার বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে ৭ জন, কর্পূরা করিমিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে ১৫ জন, জুম্মাহাট দারুল উলুম ফাজিল মাদরাসা থেকে ২০ জন, বালাচর নেছারিয়া ফাজিল মাদরাসা থেকে ২৮ জন, বজরা দারুল উলুম ফাজিল মাদরাসা থেকে ৩০ জন ও বাকরেরহাট ফাজিল মাদরাসা থেকে ১৬ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই উত্তীর্ণ হয়েছে। 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রব বলেন, উপজেলার স্কুল ও মাদরাসা মিলে ২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে। উপজেলায় স্কুল পর্যায়ে পাসের হার ৭৬ দশমিক ২৭ এবং মাদরাসা পর্যায়ে ৯৩ দশমিক ৭৯। আমরা শিক্ষার মান বৃদ্ধি নিয়ে কাজ করছি, আশা করছি আগামীতে উপজেলায় আরো ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা