kalerkantho

সোমবার । ২৯ আষাঢ় ১৪২৭। ১৩ জুলাই ২০২০। ২১ জিলকদ ১৪৪১

চট্টগ্রামে করোনার উপসর্গে আরো এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১ জুন, ২০২০ ১৯:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রামে করোনার উপসর্গে আরো এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিন পুলিশের আরো একজন কনস্টেবল করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। নিহত কনস্টেবল মামুন মিয়া (২৮) পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (পিওএম) বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ২৬ মে তিনি সর্দি জ্বর নিয়ে চট্টগ্রামের বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে সোমবার সকালে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তার দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছিল কি না তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এর আগে গত শনিবার সিএমপির বিশেষ শাখার আরেক কনস্টেবল গোলামুর রহমানের (৪৮) মৃত্যু হয়েছিল করোনা উপসর্গ নিয়ে। এই নিয়ে দুজন কনস্টেবলের মৃত্যু হলো উপসর্গ নিয়ে। আর দুজনের মৃত্যু হয়েছে করোনা আক্রান্ত হয়েছে। সেই হিসেবে চারজনের মৃত্যু হলো সিএমপিতে। এর বাইরে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের একজনসহ চট্টগ্রামে পুলিশের পাঁচটজন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়ে এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন। তবে তাদের মধ্যে গোলামুর রহমানের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে মরদেহ পুনরায় মহানগর পুলিশের দামপাড়াস্থ পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়। সেখানে করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে মামুন মিয়ার জানাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেষে মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলার পরশুরাম থানার নিজকালিকাপুর পাঠানো হয়েছে। সেখানে বিকেলে মরদেহ দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

এই বিষয়ে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (জনসংযোগ) আবু বকর সিদ্দিকী কালের কণ্ঠকে বলেন, মামুন মিয়া গত ২৬ মে সর্দি জ্বরে আক্রান্ত হন। তখন তাকে চট্টগ্রাম পুলিশ লাইনস্থ বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালের ফ্লু কর্নারে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। এরই মধ্যে সোমবার সকালে তিনি অসুস্থবোধ করলে তাকে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। পরে তার দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলে জানা যাবে, তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কি না?

তিনি আরো বলেন, মৃত্যুর পর করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে মামুন মিয়ার জানাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। শেষে তার মরদেহের পাশে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান পুলিশ কমিশনার। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা