kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

তিস্তার ভাঙন এলাকায় বালু উত্তোলণে হুমকিতে বাঁধ

রংপুর অফিস   

৩১ মে, ২০২০ ১৪:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তিস্তার ভাঙন এলাকায় বালু উত্তোলণে হুমকিতে বাঁধ

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় তিস্তার ভাঙনে বিলীন হচ্ছে আবাদী জমিসহ ফসলের ক্ষেত। আকষ্মিকভাবে তিস্তার পানি বৃদ্ধি ও কমে যাওয়ার কারণে উপজেলার কচুয়া এলাকায় এই ভাঙন দেখা দেয়। এছাড়া ভাঙনের পাশাপাশি স্থানীয় লোকজন নদী থেকে বালু উত্তোলন করে সংশ্লিষ্ট কাজের ঠিকাদারের কাছে বিক্রি করায় হুমকির মুখে পড়েছে তিস্তা প্রতিরক্ষা মুল বাঁধ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, তিস্তা প্রতিরক্ষা ডানতীর বাঁধ রক্ষায় পানির গতিপথ পরিবর্তন করার জন্য ২০০১ সালে নোহালী ইউনিয়নের পশ্চিম কচুয়া এলাকায় একটি গ্রোয়েন বাঁধ নির্মাণ করে রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড। গতিপথ পরিবর্তন না করে মুল বাঁধের দিকে এগিয়ে আসছে তিস্তা। ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড জরুরি ভিত্তিতে কিছু বালিভর্তি জিও ব্যাগ ডাম্পিং করলেও ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। 

সরেজমিনে ভাঙন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, গত কয়েকদিনের ভাঙনে উঠতি ফসলসহ বেশকিছু আবাদি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। ভাঙন অব্যাহত থাকলেও এলাকার কিছু অসাধু লোকজন তিস্তা নদী থেকে বালু তুলে তা ঠিকাদারের কাছে বিক্রি করছে। আর সেই বালু তোলা হচ্ছে বাঁধ থেকে ৫০ ফুট দুরে। এতে হুমকিতে পড়েছে ওই বাঁধটি। এলাকার সচেতন মানুষজন বলছেন, এমন কাজ করা ঠিক হচ্ছে না। যাতে লাভের চেয়ে ক্ষতির আশঙ্কাই বেশি রয়েছে। 

এ ব্যাপরে যোগাযোগ করা হলে সংশ্লিষ্ট কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী সারফুল ইসলাম ভাঙনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভাঙন রোধে জরুরি ভিত্তিতে কাজ করা হচ্ছে। আর ভাঙন এলাকায় নদী থেকে বালু তুলতে এলাকার লোকজনকে নিষেধ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা