kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

পূর্ব বিরোধের জেরে বাড়িঘর ভাঙচুর

মোহনগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধাসহ আহত ১০

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি   

৩০ মে, ২০২০ ০৭:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোহনগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধাসহ আহত ১০

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজনের অতর্কিত হামলায় আম্বিয়া খাতুন (৭২) নামে এক বৃদ্ধাসহ কমপক্ষে ১০ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। এ সময় আহতদের দুইটি বসতঘরও ব্যাপক ভাঙচুর করে এবং তাদেরকে ঘরের ভেতরেই অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদেরকে উদ্ধার করার পর ৭ জনকে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়। বাকিদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে উপজেলার বড়কাশিয়া-বিরামপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামের রহিছ উদ্দিনসহ তার লোকজন এ হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনাটি ঘটায়।

হাসপাতাল ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের মৃত খেলু মিয়ার ছেলে রহিছ উদ্দিনের সাথে একই গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে শফিকুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরেই জমিজমাসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার সকালে শফিকুল বাড়ির পাশে থাকা তার মালিকানাধীন একটি পতিত জমিতে গো-খাদ্যের জন্য ধানের খড় শুকাতে দেন। সারাদিনের রোদে শুকানো খড়গুলো বাড়িতে আনার জন্য ওইদিন বিকেলে শফিকুলের মা বৃদ্ধা আম্বিয়া খাতুন ধীরে ধীরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ওই খড়গুলো একত্র করছিলেন। এ সময় প্রতিপক্ষের রহিছ উদ্দিনের দুই ছেলে ইয়াছিন (২০) ও তাসিন (১৮) তারা দুই ভাই মিলে শফিকুলের শুকনো খড়ের উপরেই একটি ফুটবল নিয়ে খেলতে শুরু করে। তখন রহিছের মা আম্বিয়া খাতুন তাদেরকে বাধা দিলে তারা বৃদ্ধা আম্বিয়াকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে বাড়ি চলে যায়। পরে এরই জের ধরে ওইদিন সন্ধ্যায় রহিছ উদ্দিনসহ তার লোকজন ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিতভাবে শফিকুলদের বাড়িতে গিয়ে হামলা চালিয়ে তাদের দুইটি বসতঘরে ভাঙচুর করে এবং এ হামলায় কমপক্ষে ১০ জনকে গুরুতর আহত করে।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি মো আব্দুল আহাদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, খবর পাওয়ার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা