kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

‘সেনাবাহিনী দোকান ঘর তুলে না দিলে পথে বসতে হতো’

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

৩০ মে, ২০২০ ০৭:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘সেনাবাহিনী দোকান ঘর তুলে না দিলে পথে বসতে হতো’

গলাচিপায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে গৃহ নির্মান করে দেওয়া হয়েছে। পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার রতনদী তালতলী ইউনিয়ন, গলাচিপা সদর ইউনিয়ন এবং পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের দোকান ঘর নির্মান করে দেয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শেখ হাসিনা সেনানিবাসের সেনাবাহিনীর মেজর স্মৃতি দত্ত এর নেতৃত্বে ৪২ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি এবং ৭ পদাতিক ডিভিশনের সার্বিক তত্তাবধানে সেনাবাহিনীর একটি টিম সকাল থেকে ২টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ৩টি গৃহ নির্মাণ করে দেয়।

গলাচিপা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ঘ‚র্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত অনিল শাহা বলেন, ‘আমার দোকান ঘরটি গাছ পড়ে ভেঙে গেছে। বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর আমার দোকান ঘরটি তুলে না দিয়ে পথে বসতে হতো।’ 

গলাচিপা সদর ইউনিয়নের পক্ষিয়া গ্রামের কালাম মৃধা বলেন, ‘সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আমার ঘর নির্মাণ করে দিছে। আমি আল্লাহর কাছে তাদের জন্য দোয়া করি। তারা যেন মানব সেবায় সবসময় মানুষের সেবা করতে পারে। 

এ প্রসঙ্গে সেনাবাহিনীর মেজর স্মৃতি দত্ত জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৩টি পরিবারেকে সেনাবাহিনীর সদস্যরা গৃহ নির্মাণ করে দিয়েছে। মানবতার সেবায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এটা একটি চলমান প্রক্রিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা