kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

রাণীনগরে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি    

২৯ মে, ২০২০ ১৪:৪০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রাণীনগরে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

নওগাঁর রাণীনগরে রুঞ্জু মন্ডল (৪৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে  মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা। তার আত্মচিৎকারের বাড়ির সবাই এগিয়ে এলে তাদের লক্ষ্য করেও হামলা চালাতে থাকে ওই দুর্বৃত্তরা। এ সময় নিহতের স্ত্রী দুলালী বেগম গুরুতর জখম হয়। রুঞ্জু মন্ডলের মৃত্যু প্রায় নিশ্চিত করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার কালিগ্রাম ইউনিয়নের রাতোয়াল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আজ শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন নওগাঁ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল হক, এএসপি সদর সার্কেল ফারজানা ইসলাম। এ সময় তারা এই ঘটনার রহস্য উদঘাটনসহ প্রকৃত খুনীকে দ্রুত গ্রেপ্তারের আশ্বাস দেন।

নিহত রুঞ্জু ওই গ্রামের আল-হাজ্ব শুকবর আলী মন্ডলের ছেলে। তিনি  স্থানীয় রাতোয়াল বাজারে ধান, চাল, সার ও তেলের ব্যবসা করতেন।

জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রঞ্জু মন্ডল প্রতিদিনের মতো খাবার শেষে যথারীতি পরিবারের সবার সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে মুখোশধারী এক যুবক বাড়ির সাথে লাগানো গোয়াল ঘরের টিনের চালা কেটে রান্না ঘরে প্রবেশ করে পরিকল্পনা মোতাবেক বাড়ির ব্যবহৃত পানির মটর চালু করে। মটরের পানি পড়ছে টের পেয়ে রঞ্জু মন্ডল ঘুম থেকে উঠে মটর বন্ধ করার জন্য রান্না ঘরের দরজা খোলা মাত্রই আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা মুখোশধারী ওই দূর্বৃত্ত এলোপাথারিভাবে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কোপাতে থাকে। এ সময় তার স্ত্রী দুলালী বেগম এগিয়ে গেলে তাকেও কোপ মেরে জখম করে। স্বামী-স্ত্রীর আত্মচিৎকারে বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা ঘুম থেকে উঠে একযোগে এগিয়ে এলে হামলাকারীরা গোয়াল ঘরের দরজা খুলে চলে যায়। হামলাকারী একাই ছিলো বলে নিহত রঞ্জুর মন্ডলের বড় মেয়ে রুমি আকতার (২২) জানায়। 

খবর পেয়ে ওই রাতেই রাণীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মুমূর্ষ অবস্থায় রুঞ্জু মন্ডলকে উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতাল এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর রাতে মারা যান তিনি। 

তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে রঞ্জু মন্ডলের দাফন সম্পন্ন করা হয়। এই ঘটনায় ওই এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম জানান, খরব পেয়ে রাতেই আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে ডাকাতি বা লুটপাটের জন্য ঘটনা ঘটতে পারে এমন কোনো আলামত আমরা পাইনি। এই ঘটনার সাথে যেই জড়িত হোক না কেন তার ওই বাড়িতে আগে থেকেই যাতায়াত ছিল। পূর্ব শত্রুতার জের ধরেও এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে। প্রয়োজনীয় তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত খুনীকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা