kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ আষাঢ় ১৪২৭। ৩ জুলাই ২০২০। ১১ জিলকদ  ১৪৪১

মসজিদে অনুদান ঘোষণার পর ইয়াবাসহ আটক!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০২০ ০৪:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মসজিদে অনুদান ঘোষণার পর ইয়াবাসহ আটক!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়ন বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মো. আজাদ ভূঁইয়াকে ২০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের ভাষ্যমতে, স্থানীয় লোকজন তাকে ইয়াবাসহ আটক করে তাদের হাতে তুলে দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

তবে স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন এবং দলীয় সূত্র জানায়, আজাদ ভূঁইয়া স্থানীয় প্রতিহিংসার শিকার। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এলাকায় পাঁচ লাখ টাকার মতো বিতরণ করে তিনি রোষানলে পড়েছেন। মসজিদে টাকা অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তার পকেটে ইয়াবা ঢুকিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, ঈদের দিন রাতে নুরপুর এলাকায় স্থানীয় লোকজন আজাদ ভূঁইয়াকে আটক করে। তার কাছে ২০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আজাদ ভূঁইয়ার স্ত্রী সুমা আক্তার জানান, তার স্বামী ষড়যন্ত্রের শিকার। নুরপুর গ্রামের মসজিদে ৩০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা দিয়ে হীরাপুরের বাড়িতে ফেরার পথে তার পথরোধ করে প্রথমে মারধর করা হয়। পরে ২০ পিস ইয়াবাসহ পুলিশের কাছে ধরিয়ে দেওয়া হয়। তবে কারা ধরিয়ে দেন; সেই বিষয়ে কোনো ধরনের তথ্য দেননি তিনি।

আখাউড়া উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আবুল মুনসুর মিশন কালের কণ্ঠকে বলেন, আজাদ ভূঁইয়া প্রতিহিংসার শিকার। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হবেন তিনি। তাই আক্রোশের শিকার হয়েছেন। এলাকার মানুষ জানে মাস্টার্স পাশ করা আজাদ কেমন মানুষ। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি ৭২০ জনের প্রত্যেককে ৫০০ টাকা করে দেওয়াসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে পুলিশ ব্যাপক কাজ করে যেভাবে প্রশংসা পাচ্ছে, সেটা ম্লান হয়ে যাবে যদি এমন ধরনের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত না হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা