kalerkantho

শুক্রবার। ২৬ আষাঢ় ১৪২৭। ১০ জুলাই ২০২০। ১৮ জিলকদ ১৪৪১

নড়াইলে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

নড়াইল প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০২০ ০০:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নড়াইলে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নড়াইলের নড়াগতিতে চলছে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের বিরোধ ও সংঘর্ষ। এরই ধারবাহিকতায় মঙ্গলবার রাতে খুনের শিকার হয়েছেন কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কাইয়ুম সিকদার। তাকে রাস্তায় ফেলে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় তার সাথে থাকা নড়াগতি থানা কৃষকলীগের সভাপতি হাসনাত মোল্যার হাত ও পায়ের রগ কর্তন করেছে সন্ত্রাসীরা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে কালিয়া উপজেলা থেকে মোটরসাইকেলে কলাবাড়িয়া ফিরছিলেন কাইয়ুম সিকদার ও হাসনাত মোল্যা। বোয়ালিয়ার চর মন্দিরের কাছে পৌছলে সন্ত্রাসীরা পথরোধ করে। এরপর এলোপাথাড়ি কুপিয়ে কাইয়ুম সিকদারের হাত ও পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হয়। হাসনাত মোল্যার হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয় তারা। পরে স্থানীয়রা তাদের হাসপাতালে নেওয়ার পথে কাইয়ুম সিকদার মারা যান। আহত হাসনাত মোল্যাকে খুলনা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

এলাকায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে কলাবাড়িয়া ইউপির আওয়ামী লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান মাহামুদুল হাসান কায়েস সমর্থিত মুরসালিন মোল্যার সাথে তীব্র বিরোধ নড়াগাতি থানা কৃষক লীগের সভাপতি হাসনাত মোল্যার। গত শনিবার মুরসালিন গ্রুপের লোকজন হাসনাতের চাচাতো ভাই বিলায়েত মোল্যা ও তকির মোল্যাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। এ নিয়ে প্রায় দুই ঘন্টা সংঘর্ষ হয়। এ সময় অন্তত ২০ জন আহত হন। ২৫টি বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট হয়। মঙ্গলবার রাতে খুনের ঘটনা তারই সূত্রে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।
 
হামলা ও হত্যা ঘটনার পর এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নড়াগাতি থানার ওসি রোকসানা খাতুন বলেন, ‘এলাকায় পুলিশের তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। হত্যা পরবর্তী সহিংসতা বন্ধে পুলিশ কাজ করছে।’  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা