kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৯  মে ২০২০। ৫ শাওয়াল ১৪৪১

তথ্য গোপন করে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির দাফন, ৯ বাড়ি লকডাউন

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তথ্য গোপন করে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির দাফন, ৯ বাড়ি লকডাউন

করোনা আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিকে দেখা ও জানাযায় অংশ নেওয়ায় মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের পশ্চিম শিয়ালদি গ্রামের ৯ বাড়ি লকডাউন করেছে প্রশাসন। শুক্রবার বেলা ১২ টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফিকুন নাহার বাড়িগুলো লকডাউন ঘোষণা করেন। 

তিনি জানান, ইচাপুরা ইউপি চেয়ারম্যান মতিন হাওলাদার এবং নিহতের দাফন সম্পন্ন করতে যাওয়া গোরখোদক বিল্লাল, নিহতের ভাই হাফেজ জাকারিয়া, নিকট আত্মীয় বাবু তালুকদ্রা, নুরুজ্জামান, সফিউল্লাহসহ প্রতিবেশীদের বাড়িগুলো লকডাউন করে লাল নিশানা টানিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

ইছাপুরা ইউপি চেয়ারম্যান মতিন হাওলাদার জানান, ঢাকার গেন্ডারিয়ায় বসবাসকরত হুজুরের পরিবারসহ বেশ কিছু দিন যাবত সে অসুস্থ ছিল। গত বুধবার গুরুতর অসুস্থ হলে ঢাকার গেন্ডারিয়ার বাড়ি থেকে আব্দুল্লাহ আল ফারুকীকে প্রথমে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। ওই দিনই তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ সময় সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা করোনা উপসর্গ দেখতে পেলে তার নমুনা সংগ্রহ করেন। পরে ওই দিন বিকাল দিকে তার শারিরিক অবস্থার অবনতিহলে করোনা আক্রান্তের নমুনা সংগ্রহ করে তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে পাঠায় ঢামেকের চিকিৎসকরা। কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পরপরই সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় তার স্বজনরা আব্দুল্লাহর করোনা আক্রান্ত সন্দেহে নমুনা সংগ্রহ করার তথ্য গোপন করে লাশ নিয়ে চলে আসেন। পরবর্তীতে বৃহস্পতিবার সকালে নিজ গ্রামের বাড়িতেলাশ দাফন করেন। দাফনের বেশ কয়েক ঘন্টা পর রাতে আমরা জানতে পারি সে করোনায় আক্রন্ত ছিল।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.বদিউজ্জামান জানান, ওই মুহতামিম ঢাকায় থাকেন। এই কারণে ওনার আক্রন্ত বিষয়টি আমাদের কাছে আসেনি। তবে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে প্রচার করার সময় আমি জেনেছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা