kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৯  মে ২০২০। ৫ শাওয়াল ১৪৪১

ঘরে ঢুকে স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে যৌন নির্যাতন

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি   

৮ এপ্রিল, ২০২০ ০২:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘরে ঢুকে স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে যৌন নির্যাতন

নরসিংদীর রায়পুরায় গত রবিবার (৫ এপ্রিল) রাতে ঘরে ঢুকে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে (৩২) যৌন নির্যাতনের পর মারপিটের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর দিন সোমবার অভিযুক্ত বেলায়েত হোসেন বিল্লালের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী নারী। গতকাল মঙ্গলবার সরেজমিনে ঘটনাস্থলে যান রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক তারক চন্দ্র শীল।

এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চরাঞ্চলের শ্রীনগর ইউনিয়নের গোবিনাথপুর গ্রামের। যৌন নির্যাতনের শিকার ওই নারী একই ইউনিয়নের গোবিনাথপুর গ্রামের মৃত জাহের মিয়ার মেয়ে এবং তিনি দুই পুত্র সন্তানের জননী।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দুই সন্তানের জননী ও স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী তার বাপের বাড়ি গোবিনাথপুর গ্রামে বসবাস করে আসছে। রবিবার রাত সাড়ে ১১টায় একই গ্রামের আব্দুল রহিমের ছেলে বেলায়েত হোসেন বিল্লাল ওই নারীর ঘরে ঢুকে তাকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। তখন তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে পালিয়ে যান বিল্লাল। এই ঘটনার পর দিন বিল্লাল ওই নারীকে পিটিয়ে আহত করেন।

এব্যাপারে নির্যাতনের শিকার নারী বলেন, রাতে ঘরে ঢুকে বিল্লাল আমার শরীরে হাত দেয় ও ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে পালিয়ে যায় বিল্লাল। পর দিন সকালে বিল্লাল আবারও আমাকে মেরে আহত করে।

এদিকে বিল্লালের স্ত্রী পারভীন অভিযোগ করেন, মিথ্যা রটনা ছড়িয়ে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য হারুন অর রশিদের লোকজন তার স্বামীর ঘরে ভাঙচুর করেছে। তিনি আরো বলেন, এরকম কোনো ঘটনাই ঘটেনি। ওই রাতে আমি স্বামীকে নিয়ে বাপের বাড়িতে ছিলাম।

এ ব্যাপারে সাবেক শ্রীনগর ইউপি সদস্য হারুন অর রশিদ বলেন, বিল্লাল এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মসহ মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। রাতের আঁধারে ঘরে ঢুকে স্বামী পরিত্যক্তা দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল বলে শুনেছি। আমি তার অপকর্মের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

এ ব্যাপারে রায়পুরা থানার উপ-পরিদর্শক তারক চন্দ্র শীল বলেন, মারামারির ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগীর সঙ্গে কথা বলেছি। তবে থানায় ওই নারীর অভিযোগের বিষয়টি আমি নিশ্চিত নয়। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা