kalerkantho

সোমবার । ২৯ আষাঢ় ১৪২৭। ১৩ জুলাই ২০২০। ২১ জিলকদ ১৪৪১

সিঙ্গাইরে আরো তিন করোনা রোগী

মোবারক হোসেন, সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ)   

৭ এপ্রিল, ২০২০ ১৩:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিঙ্গাইরে আরো তিন করোনা রোগী

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে আরো তিনজনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তারা সবাই তাবলিগ জামাতের মুসল্লি। মঙ্গলবার দুপুরে মানিকগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ এই তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক উম্মে কুলসুম (৪৫) ও তাবলিগ জামাতের মুসল্লি আব্দুল বাকি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এ নিয়ে উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচজনে দাঁড়াল।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ মার্চ তাবলিগ জামাতের ১৩ সদস্যের একটি দল ফরিদপুর থেকে সিঙ্গাইর পৌরসভার আজিমপুর নয়াডাঙ্গি এলাকায় অবস্থিত বাইতুল মামুর ও মারকাযুল মা আরিফ ওয়াদ-দা ওয়াহ মাদরাসায় আসে। এদের মধ্যে আব্দুল বাকি নামে ৬০ বছর বয়সী এক মুরব্বির শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। ঢাকায় আইইডিসিআরে পরীক্ষা করলে গত শনিবার (৪ এপ্রিল) তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। তথ্য নিশ্চিত হওয়ার পর মাদরাসা মসজিদসহ পুরো পৌরসভা লকডাউন ঘোষণা করে প্রশাসন। এ ছাড়া ওই তাবলিগ জামাতের বাকি ১২ সদস্যসহ তাদের সংস্পর্শে আসা ২৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। এদের মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ১১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণাগারে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়। এই ১১ জনের মধ্যে মো. আমিনুল ইসলাম, মো. মজিবর রহমান ও মো. হায়দার মোল্লার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. সেকেন্দার আলী মোল্লা বলেন, করোনায় আক্রান্ত নতুন তিন ব্যক্তিকে সিঙ্গাইর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখার প্রস্তুতি চলছে। আর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক উম্মে কুলসুম ঢাকার উত্তরায় কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রি সরকারি হাসপাতালে ও তাবলিগ জামাতের মুসল্লি আব্দুল বাকি আইইডিসিআর পরিচালিত আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন। তিনি আরো জানান, তাবলিগ জামাতের বাকি সদস্য ও তাদের সংস্পর্শে আসা আরো সাতজনের নমুনা সংগ্রহ করে সোমবার ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণাগারে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। তাদের রিপোর্ট এখনো পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা