kalerkantho

কলমাকান্দায় ২৮ চোরাই গরু উদ্ধার, সহোদর ভাইসহ গ্রেপ্তার ৩

কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলমাকান্দায় ২৮ চোরাই গরু উদ্ধার, সহোদর ভাইসহ গ্রেপ্তার ৩

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় ২৮টি চোরাই গরু উদ্ধার করা হয়েছে। সহোদর ভাইসহ তিন গরু চোরকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার বড়খাপন ইউনিয়নের চেমটি গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের দুই পুত্র আনোয়ার (৪৫) ও সাজু মিয়া (৩৫) এবং একই ইউনিয়নের রিকা চর গ্রামের মনির উদ্দিন (ছোট্টনী) এর পুত্র মাসুদ (৪৫)। 

স্থানীয় ইউপি মেম্বার মো. আব্দুল কাদির জানান বড়খাপন ইউনিয়নের চেমটি ও রিকাচর গ্রাম থেকে রবিবার ও সোমবার কলমাকান্দা থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে ২৮টি চোরাই গরু উদ্ধারসহ তিন পেশাদার গরু চোরকে গ্রেপ্তার করেছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এ কে এম হাদিছুজ্জামান হাদিছ জানান পুলিশি অভিযানে রবিবার সন্ধ্যায় গরু চুরির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গরু চোরদের পৃথক পৃথক স্থান থেকে গ্রেপ্তার করে ২৭টি গরু উদ্ধার করে। পরে সোমবার বিকালে বড়খাপন ইউনিয়নের প্রাক্তন মেম্বর ফরহাদের বাড়ি থেকে কাজলা রংয়ের আরো একটি ষাঁড় গরু পুলিশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তবে বাড়িতে ফরহাদ মেম্বরকে পাওয়া যায়নি।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গরু উদ্ধার ও চোরদের গ্রেপ্তার করতে মাঠে নামে পুলিশ। তিন গরু চোরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের প্রাথমিক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির সূত্র ধরে দুদিনে ছোট বড় ২৮টি চোরাই গরু উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় থানায় জিডি বা অভিযোগ দায়ের করা হলে পুলিশ সম্প্রতি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কয়েকটি গরু চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান শুরু করে।

কলমাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মাজহারুল করিম কালের কণ্ঠকে জানান, সোমবার রাতে গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে ৭ জন গরুর মালিক এবং পুলিশ বাদী হয়ে মোট ৮টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও মালিকদের গরু বুঝিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা