kalerkantho

সোমবার । ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ১  জুন ২০২০। ৮ শাওয়াল ১৪৪১

আদমদীঘির দুজনের নমুনা গেল রাজশাহীতে

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৬ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আদমদীঘির দুজনের নমুনা গেল রাজশাহীতে

বগুড়ার আদমদীঘিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে দুজনকে বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে আইসোলেশনে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসার পর ওই দুজনকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তা ছাড়া তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি আছে কি-না তা নিশ্চিত হতে নমুনা পরীক্ষার জন্য সোমবার সকাল ১০টায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শহীদুল্লাহ দেওয়ান জানান, ৪৮ ঘণ্টা পর নমুনা পরীক্ষার ফলাফল এলে সম্পূর্ণভাবে বোঝা যাবে তারা আক্রান্ত হয়েছে কি-না। তবে বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে থার্মাল স্ক্যানার বসানো হয়েছে। তাতে ধারণা করা হচ্ছে তারা আক্রান্ত নয়। আক্রান্ত সন্দেহ ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করে নিবিড় পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

তিনি আরো জানান, উপজেলার চাটখইর গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে আল আমিন (২৮) ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় একটি চাইনিস কম্পানিতে চীনা নাগরিকের সাথে শ্রমিকের কাজ করছিলেন। তার শরীরে তাপমাত্র বেড়ে জ্বর, সর্দি, কাশি ও গলাব্যথাসহ নানা উপসর্গ দেখা দিলে কর্মস্থল থেকে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। তিনি গত বৃহস্পতিবার বাড়িতে এসে আত্মগোপনে থাকেন। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর রবিবার দুপুরে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ওই বাড়িতে পৌঁছে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার ব্যবহৃত কাপড়চোপড় পুড়িয়ে ফেলেন।

তা ছাড়া করোনা আক্রান্ত সন্দেহে উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের তাজন প্রামানিক (৪৮) নামের আপর ব্যাক্তির বাড়িতে গিয়ে তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপর তাদের দুজনকে বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে আইসোলেশনে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে তাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা