kalerkantho

বুধবার । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৭  মে ২০২০। ৩ শাওয়াল ১৪৪১

বাজারে আড্ডা, রাস্তায় যান চলাচল

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি   

১ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাজারে আড্ডা, রাস্তায় যান চলাচল

গত কয়েকদিন ঘরে থাকলেও মঙ্গলবার থেকে বাইরে বের হওয়া শুরু করেছেন মানুষ। কেউ কেউ কাজের টানে কেউ আবার বের হচ্ছেন বাজার করতে। আবার বিভিন্ন এলাকার ভেতরে যুবকদের আড্ডা দিতেও দেখা গেছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ঘরে থাকার নির্দেশনা প্রায় এক সপ্তাহ পুরোপুরি মেনে চলেছে রানীশংকৈলবাসী। কিন্তু গত দুইদিন থেকে বাড়ছে যান চলাচল ও মানুষের ভিড়। তবে রানীশংকৈলের রাস্তা-ঘাটে ভিড় কমাতে এবং করোনার সংক্রমণ এড়াতে সমাগম না করে জনগণকে নিজ নিজ ঘরে থাকার অবিরাম প্রচারণা চালাচ্ছে প্রশাসন।

বুধবার নগরীর শিবদিঘী ও বন্দরবাজার এলাকায় যানবাহনের অবাধ চলাচল ছিল। রিক্সা, প্রাইভেট কার, ভ্যান, অটোরিকশা, বাঁশবহনের গাড়িসহ নানা ধরনের যান যাত্রী ও পণ্য নিয়ে চলাচল করেছে। তবে এর বাইরে অন্যান্য এলাকায় খুব বেশি যানবাহনের চলাচল দেখা যায়নি। যানবাহন চলাচল না করলেও বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার অলিগলিতে তরুণ-যুবকদের দাঁড়িয়ে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। শিশুদের রাস্তায় খেলতে দেখা গেছে। দল বেঁধে হাঁটতে দেখা গেছে বয়স্কদেরও।

এ ছাড়া উপজেলার বাজার, পৌরবাজার, খুনিয়া দিঘীর পাড়, কলেজপাড়া, বসাক পাড়া, রাজবাড়ি, শান্তিপুর, পকোয়ানটলী আগাটুলা, ভাংবাড়ি, শাহাপাড়া, হাটখোলা বাজার, রংপুরিয়াপাড়া, চাদনী,ভান্ডারা , মিরডাঙ্গী বাজার ও নেকমরদ এলাকার বিভিন্ন মহল্লার রাস্তায় দাঁড়িয়ে তরুণ-যুবকদের আড্ডা দিতে দেখা গেছে। তবে এসব এলাকার মূল সড়কগুলো ছিল অনেকটাই ফাঁকা।

বাচোর,লেহেম্বা, বলিদ্বারা, নন্দুয়ার, রাতোর,ধর্মগড়, হোসেনগাঁও, নেকমরদ,বিরাশী বাজার, জয়কালীবাজার, গাজীরহাটবাজারসহ কয়েকটি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে রাস্তায় যান চলাচল ও মানুষের ভিড় ছিলো লক্ষণীয়।

এদিকে পৌর শহরে মানুষ সমাগম খানিক বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করছেন সচেতন মহল। তারা বলছেন, যদিও লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলসহ সারাদেশে। তবুও প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে এর চাইতে বিকল্প কোনো উপায় নেই। তাই একটু কষ্ট হলেও কয়েকদিন ঘরে অবস্থান নেয়ায় দেশ ও জাতির জন্য মঙ্গল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা