kalerkantho

শনিবার । ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩০  মে ২০২০। ৬ শাওয়াল ১৪৪১

ছাগল চুরি করে ভুরিভোজ ও মাদক সেবনের আসর

বিশেষ প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১ এপ্রিল, ২০২০ ০১:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাগল চুরি করে ভুরিভোজ ও মাদক সেবনের আসর

সারা বিশ্ব যখন করোনাভাইরাস নিয়ে মহাবিপদ সংকটে রয়েছে। এ মহামারি ভাইরাস থেকে রক্ষায় বাংলাদেশ সরকার লকডাউন ঘোষণা করলেও সাবরাং চান্ডলি পাড়ায় মুরগী ও ছাগল চুরি করে ভুরিভোজ এবং মাদক সেবনে আড্ডায় মেতেছে বখাটেরা।

লকডাউনের সুযোগে খেটে খাওয়া দিনমজুর অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের বাড়িঘর ও চারণভূমি থেকে গৃহপালিত মুরগী ও ছাগল চুরি করে কতিপয় চিহ্নিত যুবক ভুরিভোজ এবং মাদক সেবনের আসর জমান।

টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে বেড়েছে চুরি ও ছিনতাই। নিরুপায় এলাকার জনসাধারণ।

সাবরাং ইউনিয়নের চান্ডলি পাড়া গ্রামে স্থানী চিহ্নিত কতিপয় যুবকদের নানাবিধ অপরাধের ফলে জিম্মি দশায় দিন কাটাচ্ছে এলাকাবাসী। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে জানায় প্রতিনিয়ত কিছু চিহ্নিত অপরাধী এলাকার বাড়িঘর ও চারণভূমি থেকে গৃহপালিত মুরগী ও ছাগল চুরি করে নিয়ে যায়।

চিহ্নিত কতিপয় যুবক চুরি করা ছাগল ও মুরগী নিয়ে এলাকায় আনন্দভোজন ও মাদক সেবনের আড্ডা জমায়। এভাবে প্রায় ৪টি ছাগল ও প্রায় ২০টি মুরগী চুরি করে নানাবিধ অপকর্ম করছে বলে জানা যায়। ভুক্তভোগীরা চিহ্নিত এ মাস্তান বাহিনীর ভয়ে মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না। এবং চিহ্নিত অপরাধীদের বিরুদ্ধে বিচার-সালিস কিংবা অভিযোগ করার সাহসও পাচ্ছে না ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবার।

এ ব্যাপারে সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর হোছাইন জানান বিষয়টি আমি শুনেছি। এবং খোঁজ নিচ্ছি অভিযোগের বিত্তিতে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে খুরের মুখ, মুন্ডার ডেইল, চান্ডলি পাড়া গ্রামে পুনঃরায় মানব পাচারকারী ও ইয়াবা কারবারি সক্রিয় হয়ে উঠছে। এবং সাতজনের একটি সিন্ডিকেট নৌপথে মাদক ও মানবপাচারের পুনঃপ্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানান। প্রশাসন দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে আগামীতে মারাত্মক পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশংকা করছে এলাকাবাসী।

ভুক্তভোগী এলাকার জনসাধারণ টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি প্রদীপ কুমার দাশের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা