kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৯  মে ২০২০। ৫ শাওয়াল ১৪৪১

স্বাভাবিক মৃত্যুর পরও করোনাতঙ্ক

পরিবার ও চিকিৎসকের দাবি মৃত্যু অতিরিক্ত জ্বর ও শ্বাসকষ্ট

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ   

২৯ মার্চ, ২০২০ ০৩:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরিবার ও চিকিৎসকের দাবি মৃত্যু অতিরিক্ত জ্বর ও শ্বাসকষ্ট

স্বাভাবিক মৃত্যুর পরও করোনাতঙ্ক। চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে জ্বরে আক্রান্ত থাকার পর একজনের মৃত্যু হয়েছে। শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের খোনাপাড়া গ্রামের ইয়াসিন আলীর ছেলে নিহত গোলাম নবী জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে জানান নিহতের স্বজন ও চিকিৎসকরা। পেশায় ব্যবসায়ী ৫০ বছর বয়সের গোলাম নবী শনিবার (২৮ মার্চ) বিকেলে নিজ বাড়িতে মারা যান।

নিহতের মেজ ভাই গোলাম রসুল ও পরিবারের সদস্যরা জানান, ৭ দিন আগে ২১ মার্চ শনিবার তার হঠাৎ জ্বর হয়। এরপর তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে পরিবারের সদস্যরা।

গোলাম রসুল জানান, গোলাম নবী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হননি, শ্বাসকষ্ট ও অতিরিক্ত জ্বরেই মারা গেছেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী জানান, করোনায় নয় লেফট ভেন্টিকুলার ডিজিজে ভুগছিলেন, জ্বর ও শ্বাসকষ্টে গোলাম নবী মারা যায়।

শনিবার বিকেলে নিহত গোলাম নবীর বাড়ির ভেতরে কয়েকজন আত্মীয়-স্বজন অবস্থান করলেও সন্দেহ এবং আতঙ্কের কারণে বাড়ির আশপাশে তেমন কোনো মানুষজন লক্ষ করা যায়নি। দূরে থাকা কয়েকজন জানান, করোনাভাইরাস আতঙ্কের কারণে মানুষ সেখানে যাচ্ছে না, তবে মনে হচ্ছে স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে গোলাম নবীর।

শনিবার রাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী, শিবগঞ্জ উপজেলা পরিববার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল আকতার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এরপর তারা জানান, এটি স্বাভাবিক মৃত্যু। তিনি লেফট ভেন্টিকুলার ডিজিজে ভুগছিলেন।

এছাড়া সম্প্রতি কোনো বিদেশফেরত প্রবাসীও ওই গ্রামে আসেনি। মৃত ব্যক্তিও বাইরে কোথাও যাননি। সুতরাং গোলাম নবী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায়নি। তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে এবং স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসনিকভাবে তার স্বাভাবিক দাফনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছেন নিহতের পরিবারকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা