kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে বাড়িঘর ভাঙচুর, নারীসহ আহত ১০

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৯ মার্চ, ২০২০ ০১:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে বাড়িঘর ভাঙচুর, নারীসহ আহত ১০

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ভাটিকৃষ্চ নগর গ্রামে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে বিল্লাল মিয়ার বাড়িতে প্রতিপক্ষ ফেরদৌস মিয়ার সমর্থকদের হামলায় বাড়িঘর ভাঙচুর, লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

এ সময় প্রতিপক্ষ ফেরদৌস মিয়ার সমর্থকরা শুধু বাড়িঘর ভাঙচুরই করেননি বাড়ির নারীসহ বেশ কয়েকজনকে মারধর করে রক্তাক্ত জখম করেছে বলে ও অভিযোগ রয়েছে। হামলায় গুরুতর আহত শাহনেওয়াজ কে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে সে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

এছাড়া হামলায় বিল্লাল মিয়া (৬০), তার স্ত্রী লতিফা বেগম মামুন (২৮), রাজন (৩০) সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এলাকাবাসীরা জানায়, ক্রিকেট খেলা নিয়ে বিল্লাল মিয়ার বাড়ির স্কুল শিক্ষার্থী হৃদয় মিয়ার সঙ্গে সাববাড়ির ফেরদৌস মিয়ার বাড়ির মুক্তারের কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে রূপ নেয় শুক্রবার বিকালে। 

এরই জের ধরে সন্ধ্যায় ফেরদৌস মিয়ার সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হইয়া আকস্মিক হামলা চালিয়ে বিল্লা মিয়ার বাড়িতে ঢুকে একটি মোটরসাইকেল, ঘরের আসবাবপত্র ও বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

এ সময় বিল্লাল মিয়ার স্ত্রী বাধা দিলে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। এ সময় তাকে বাঁচাতে বিল্লাল মিয়া ও তার ভাতিজা শাহ নেওয়াজসহ কয়েকজন এগিয়ে এলে তাদেরকে ও মারধর গুরুতর আহত করে। 

খবর পেয়ে ভৈরব থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিকি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে এলাকাবাসীরা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহনেওয়াজকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ বিষয়ে ভৈরব থানার ওসি (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার জানান, মারামারির ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা