kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

নবীনগরে ১৫০ পিস পিপিই ও মাস্ক দিলেন সাবেক এমপি

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি   

২৭ মার্চ, ২০২০ ০৯:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নবীনগরে ১৫০ পিস পিপিই ও মাস্ক দিলেন সাবেক এমপি

পিপিই সংকটের কারণে যখন হাসপাতালের ডাক্তার, নার্সসহ সংশ্লিষ্টরা করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে কাজ করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছিলেন ঠিক তখনই করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে কাজ করা ওইসব আকঙ্কিত মানুষগুলোর মাঝে ১৫০ পিস পিপিই ও গ্লাস প্রটেক্ট মাস্ক পাঠিয়ে এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের সাবেক সাংসদ ও নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি ফয়জুর রহমান বাদল। গতকাল বৃহস্পতিবার  নবীনগর পৌরসভা কার্যালয়ে মেয়রের কক্ষে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে সাবেক সাংসদ কর্তৃক পাঠানো এসব পিপিই ও মাস্ক সংশ্লিষ্টদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় নবীনগর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শিব শংকর দাস, উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. হাবিবুর রহমান, ওসি রনোজিত রায়সহ আওয়ামী লীগ এবং এর অংঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও পৌরসভার কাউন্সিলরগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে নবীনগর পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট শিব শংকর দাস বলেন, 'হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট, পুলিশ, উপজেলা প্রশাসন ও মাঠ পর্যায়ে কাজ করা সাংবাদিকদের মাঝে করোনাবিরোধী এসব নিরাপত্তা সরঞ্জমাদী সাবেক এমপি বাদল ভাইয়ের পক্ষে আমরা সবাই বিতরণ করেছি।'

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত ইউএইচএ ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, 'পিপিই ও আধুনিক মাস্কের অভাবে আমরা যখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছিলাম তখন সাবেক এমপি মহোদয়ের পাঠানো এমন সময়োপযোগী উপহারগুলোর  জন্য স্যারকে আমরা অশেষ কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তবে হাসপাতালের জন্য আরও গোটা ২৫টি পিপিই হলে আরো ভালো হতো।'

এ ব্যাপারে বিষয়ে সাবেক এমপি ফয়জুর রহমান বাদল মুঠোফোনে কালের কণ্ঠ বলেন, 'করোনা নিয়ে যারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমার এলাকায় কাজ করছে তাদের জন্য প্রয়োজন হলে আবারো পিপিই ও মাস্ক পাঠাবে। নবীনগর হাসপাতালের কেউ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করলে আমি আরো ৫০টি পিপিই পাঠিয়ে দেবে।'

তিনি আরো জানান, উন্নত কোয়ালিটির এসব পারসোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট ( পিপিই)  সর্বোচ্চ ২০ বার ধূয়ে ব্যবহার করা যাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা