kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

চার বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি   

২৭ মার্চ, ২০২০ ০৬:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চার বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

পঞ্চগড়ে চার বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সজিব ইসলাম (১৫) নামে এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। তার বাড়ি পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেরা ইউনিয়নের জোতসাওদা পূর্বডাঙ্গী গ্রামে। সে ওই গ্রামের ওলেমান আলীর ছেলে। এর আগেও ওই কিশোরের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই শিশু বাড়ির পাশেই খেলছিল। এ সময় পূর্বডাঙ্গী গ্রামের ওলেমান আলীর ছেলে সজিব ইসলাম তাকে ডেকে পাশের গম ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরে ওই শিশুর চিৎকারে তার মা ছুটে আসলে পালিয়ে যায় সজিব। 
বিষয়টি জানাজানি হলে সন্ধ্যায় স্থানীয়রা ওই কিশোরকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই কিশোরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। তার বিরুদ্ধে ওই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। শিশুটিকে তার মায়ের কাছেই রাখা হয়েছে। তবে সে ভয়ে বারবার আতকে উঠছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার। 

এর আগে ২০১৯ সালের অক্টোবরে ওই কিশোর তার গ্রামের দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে সে ওই স্কুলছাত্রীর বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগও করে। পরে ওই কিশোরকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। ওই ঘটনায় থানায় একটি মামলাও হয়। মামলাটি এখনো চলছে। মামলায় ওই কিশোর দীর্ঘদিন সেভহোমে ছিল। 

পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাস আহমদ বলেন, চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ওই বখাটে কিশোরকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। তার বিরুদ্ধে ওই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রক্রিয়া চলছে। মামলা হলেই তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে। ওই কিশোরের বিরুদ্ধে আগেও এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান তিনি। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা